• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

‘সবাই ওমিক্রনে আক্রান্ত হবে, বুস্টারেও কাজ হবে না’

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ জানুয়ারি ২০২২, ১২:১০
‘সবাই ওমিক্রনে আক্রান্ত হবে, বুস্টারেও কাজ হবে না’
পিঁপিঁই পরিহিত স্বাস্থ্যকর্মীরা (ফাইল ছবি)

মহামারি করোনা ভাইরাসের অতি সংক্রামক ধরন ওমিক্রনের থাবায় ‘প্রায় অপ্রতিরোধ্য’ এবং সবাই শেষ পর্যন্ত এই ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমিত হবে। এমনকি কোভিড-১৯ প্রতিরোধী ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজও প্রাণঘাতী ভাইরাসটির শক্তিশালী এই ধরনটির ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে পারবে না।

ভারতীয় মিডিয়া এনডিটিভির কাছে ভাইরাসটির ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে এমন হুঁশিয়ারিই উচ্চারণ করেছেন দেশটির অন্যতম শীর্ষ চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ ড. জয়প্রকাশ মুলীয়িল। মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে করা প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে সংবাদমাধ্যমটি।

ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে মারাত্মক এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করা এই চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্সের (আইসিএমআর) ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অন এপিডেমিওলজিস্টের সায়েন্টিফিক অ্যাডভাইসরি কমিটির চেয়ারম্যান।

তিনি বলেছেন, করোনা ভাইরাসের ওমিক্রন ধরন প্রায় অপ্রতিরোধ্য। সকলেই এই ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমিত হবেন। তখন বুস্টার ডোজও এই সংক্রমণ প্রতিহত করতে পারবে না। সকলেই আক্রান্ত হবেন। বর্তমানে বিশ্বজুড়ে সেটিই হচ্ছে, সেখানেও সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্যর্থ হচ্ছে বুস্টার ডোজ।

তার ভাষায়, করোনা প্রতিরোধী টিকার বুস্টার ডোজও ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টকে আটকাতে পারবে না। ভ্যাকসিন নেওয়া থাকলেও সাধারণ মানুষ সংক্রমিত হবেই।

আরও পড়ুন : ব্যালিস্টিক মিসাইল ছুঁড়ে ফের শক্তি দেখাল উ. কোরিয়া

অবশ্য কোভিড মহামারি নিয়ে আশার বাণীও শুনিয়েছেন দক্ষিণ এশিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ভারতের অন্যতম শীর্ষ এই চিকিৎসা বিজ্ঞানী। টানা দুই বছর যাবত করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপী দাপট দেখালেও কোভিড-১৯ নিয়ে আর কোনো ভয় নেই বলে মনে করছেন তিনি।

ড. জয়প্রকাশ মুলীয়িলের মতে, করোনা আর ভয়ংকর কোনো রোগ নয়। কারণ এর নতুন ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমণের গুরুতর আকার ধারণ করার সম্ভাবনা অনেক কম, হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সংখ্যাও অনেক কম।

ওমিক্রনের সঙ্গে করোনার বাকি ভ্যারিয়েন্টগুলোর তুলনা করে ভারতীয় এই মহামারি বিশেষজ্ঞ আরও বলেন, আমরা বেশ অনেকটা আলাদা এক ভাইরাসের সঙ্গে লড়ছি। এটি ভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় অনেক কম ভয়ানক। এছাড়া এই ভ্যারিয়েন্ট কার্যত অপ্রতিরোধ্য। ঠাণ্ডা লাগা বা সর্দি কাশির মতোই উপসর্গ দেখা যাচ্ছে ওমিক্রনের ক্ষেত্রে।

আইসিএমআরের এই বিশেষজ্ঞের দাবি, মানবদেহের ভেতরে নিজে থেকেই তৈরি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আজীবন থেকে যেতে পারে। আর সেই কারণেই বিশ্বের বাকি দেশগুলোর মতো ওমিক্রনের প্রভাব ভারতে খুব বেশি পড়েনি।

তিনি জানিয়েছেন, করোনা প্রতিরোধী প্রথম টিকা গ্রহণের আগেই দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতের ৮৫ শতাংশ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। ফলে কোভিড-১৯ টিকার প্রথম ডোজ আসলে বুস্টার ডোজ হিসেবেই কাজ করেছে।

আরও পড়ুন : মালয়েশিয়ায় কর্মী নিয়োগ : শীঘ্রই ঘোষণা আসছে অনলাইন আবেদনের

চিকিৎসক বা কোনো স্বীকৃত বিশেষজ্ঞ কমিটির পক্ষ থেকেই বুস্টার ডোজ প্রয়োগের বিষয়ে সুপারিশ করা হয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, সংক্রমণের বৃদ্ধি ও অভিযোজনকে ভ্যাকসিনের কোনো বুস্টার ডোজই রুখতে পারবে না।

অবশ্য উপসর্গহীনদের করোনা পরীক্ষা করা নিয়েও ভিন্ন মত দেন ড. জয়প্রকাশ। তিনি দাবি করেন, মানবদেহে ভাইরাস প্রবেশের দুদিনের মধ্যেই ভাইরাস দ্বিগুণ হয়ে যায়। তাই করোনা পরীক্ষায় সংক্রমণ ধরা পড়ার আগেই, উপসর্গহীন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি বিপুল সংখ্যক মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে দিয়ে থাকেন। তাই পরীক্ষা করানো ও কন্ট্যাক্ট ট্রেসিংয়ের ক্ষেত্রে আমরা অনেকটা পিছিয়ে থাকবো। তবে এটি মহামারির বিবর্তনে খুব একটা প্রভাব ফেলবে না।

করোনা টিকার বুস্টার ডোজের কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই জানিয়ে ড. জয়প্রকাশের দাবি, আমরা বা সরকারি কোনো প্রতিষ্ঠান বা বিশেষজ্ঞদের পক্ষ থেকে বুস্টার ডোজ দেওয়ার বিষয়ে সরকারের কাছে সুপারিশ করা হয়নি। আমার জানা মতে, সতর্কতামূলক ডোজ গ্রহণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে, যদিও তা বাধ্যতামূলক নয়।

কারণ হিসেবে তিনি মনে করেন, বিভিন্ন প্রতিবেদনে দেখা গেছে, বহু মানুষ, বিশেষ করে ষাটোর্ধরা করোনার দুই ডোজ টিকা নেওয়ার বিষয়ে সাড়া দেয়নি।

আরও পড়ুন : বেসরকারি অফিস বন্ধের নির্দেশ দিল্লিতে

তার মতে, আমাদের মধ্যে অধিকাংশ মানুষই বুঝতে পারব না যে, আমরা কখন ভাইরাসে আক্রান্ত হব। প্রায় ৮০ শতাংশেরও বেশি মানুষ তাদের করোনায় সংক্রমিত হওয়ার কথা জানতেও পারবেন না।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড