• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বেসরকারি অফিস বন্ধের নির্দেশ দিল্লিতে

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১১ জানুয়ারি ২০২২, ১৬:২৫
বেসরকারি অফিস বন্ধের নির্দেশ দিল্লিতে
কর্মী শূন্য অফিস (ছবি : এনডিটিভি)

মহামারি করোনা ভাইরাসের ভয়াল সংক্রমণের ঢেউ ঠেকাতে দক্ষিণ এশিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ রাষ্ট্র ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সব বেসরকারি অফিস বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এমনকি সেসব প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের নিজ বাড়িতে বসে কাজ করার কথাও বলা হয়েছে। যদিও শুধু জরুরি পরিষেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোই এ নির্দেশনার বাইরে থাকবে।

এতদিন ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে চালু ছিল দেশটির সকল সরকারি ও বেসরকারি অফিস। বাকিরা বাসা থেকে কাজ করেছিলেন। নতুন এই নিয়মের ফলে বাইরে থাকবে জরুরি পরিষেবাদাতা প্রতিষ্ঠান, বেসরকারি ব্যাংক, ইনস্যুরেন্স কোম্পানি, ফার্মা কোম্পানি, কুরিয়ার সার্ভিসের অফিস।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) দিল্লির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (ডিডিএমএ) বিবৃতির মাধ্যমে সিদ্ধান্তটি জানায়।

এর আগে সোমবার (১০ জানুয়ারি) দিল্লিতে রেস্তোরাঁ ও বার বন্ধ করে দেওয়া হয়। যদিও টেকওয়ে ও হোম ডেলিভারির অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

গতকাল দিল্লিতে ১৯ হাজারের অধিক মানুষের দেহে প্রাণঘাতী ভাইরাসটির উপস্থিতি শনাক্ত হয়; রবিবার এ সংখ্যা ২২ হাজার ৭৫১ জনের কিছু বেশি ছিল। সোমবার শনাক্তের হার ছিল ২৫ শতাংশ, যা গত বছরের ৫ মের পর সর্বোচ্চ। একই সঙ্গে শহরটিতে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আরও পড়ুন : করোনার সংক্রমণ কমল ভারতে

দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন বলেছেন, আগামী দু-একদিনের মধ্যেই শহরে সংক্রমণ চূড়ায় পৌঁছবে। এমনও হতে পারে, আমরা বর্তমানে সংক্রমণের চূড়াতেই অবস্থান করছি। তারপর থেকে ক্রমশ নামবে সংক্রমণ।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনে জানানো হয়, দেশটিতে বর্তমানে সক্রিয় কোভিড রোগী আছেন আট লাখ ২১ হাজার ৪৪৬ জন। যা মোট রোগীর প্রায় ২ দশমিক ২৯ শতাংশ। কিন্তু ঘনবসতিপূর্ণ দেশটিতে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটি ৫৮ লাখ ৭৫ হাজার ৭৯০ জন। আর মৃত্যুবরণ করেছেন চার লাখ ৮৪ হাজার ২১৩ জন।

দেশটিতে গত এক দিনে কমপক্ষে ৬৯ হাজার ৯৫৯ জন রোগী করোনা থেকে মুক্তি পেয়েছেন। এর ফলে প্রাণঘাতী এই রোগ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা বর্তমানে তিন কোটি ৪৫ লাখ ৭০ হাজার ১৩১ জনে দাঁড়িয়েছে। ভারতে এখন ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে ওঠার হার ৯৬ দশমিক ৩৬ শতাংশে রয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্য কর্মীদের মতে, করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত দেশ ভারতে এখন পর্যন্ত ১৫২ কোট ৮৯ লাখ ডোজ টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে। এছাড়া সোমবার থেকে দেশটির জ্যেষ্ঠ ও ঝুঁকিপূর্ণ এবং সম্মুখসারির কর্মীদের ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজের প্রয়োগ শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন : পাকিস্তানে পুলিশি অভিযানে ৬ আইএস কর্মী নিহত

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের লাগাম টানার লড়াইয়ে এরই মধ্যে ভারতের বিভিন্ন প্রদেশ ও কেন্দ্র নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে নতুন করে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। হোটেল, শপিং মলে মানুষের প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপের পাশাপাশি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে, স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়।

সূত্র : এনডিটিভি

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড