• মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮  |   ১৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মিশিগানে নির্বাচন

ইতিহাস গড়লেন হ্যামট্রামেকের মুসলিম জনপ্রতিনিধিরা

  কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি

০৬ জানুয়ারি ২০২২, ০৯:৪৭
ইতিহাস গড়লেন হ্যামট্রামেকের মুসলিম জনপ্রতিনিধিরা
হ্যামট্রামেক সিটি মুসলিম জনপ্রতিনিধিরা (ছবি : অধিকার)

ব্যাপক উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো একটি সিটির শাসনভার গ্রহণ করলেন মুসলিম জনপ্রতিনিধিরা। দেশটির মিশিগান অঙ্গরাজ্যের হ্যামট্রামেক সিটির মেয়র থেকে নির্বাচিত সকল জনপ্রতিনিধিই মুসলিম। মাত্র দুই বর্গমাইলের ছোট্ট সিটি হ্যামট্রামেক। মিশিগানের সবচেয়ে বৈচিত্র্যময় এই সিটি ডেট্রয়েট সিটির সীমারেখার মাঝে অবস্থিত।

হ্যামট্রামেক সিটির নবনির্বাচিত মুসলিম মেয়র আমির গালিবসহ তিনজন কাউন্সিলর রবিবার (২ জানুয়ারি) আনুষ্ঠানিকভাবে শপথগ্রহণ করেন। হ্যামট্রামেক হাই স্কুল কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সিটির সব সম্প্রদায়ের শতাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করেন ডিয়ারবর্ন সিটির একজন ইয়েমেনি-আমেরিকান শিল্পী মারিয়া সাদ। এরপর বাংলাদেশি শিল্পী অনামিকা রায়ও একটি বাংলা গান পরিবেশন করেন। মোট ৪টি ধাপে এসব নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়।

অঙ্গরাজ্যটির ৩১তম জেলা আদালতের বিচারক অ্যালেক্সিস ক্রোট নবনির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের শপথ বাক্য পাঠ করান। এ সময় অতিথিদের স্বাগত জানান হ্যামট্রামেক সিটি ম্যানেজার ক্যাথলিন অ্যাঙ্গেরার।

ক্যাথলিন বলেছেন, আমাদের বাসিন্দাদের, আমাদের অভিবাসী পরিবারগুলোকে স্থানীয় রাজনীতিতে প্রবেশ করতে আমেরিকার তুলনা হয় না। আজ আমরা আমেরিকান স্বপ্নের বাস্তবতার সাক্ষী। আমরা এমন একটি দেশে বসবাস করি যেখানে যে কেউ তাদের স্বপ্ন পূরণ করতে পারে।

আরও পড়ুন : মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার : চালুর আগেই সিন্ডিকেটের গুঞ্জন

তিনজন নবনির্বাচিত কাউন্সিলর সদস্য খলিল রেফাই, আমান্ডা জ্যাকস্কি এবং অ্যাডাম আলবারমাকির সঙ্গে নবনির্বাচিত মেয়র আমির গালিব শপথগ্রহণ করেন। এ সময় বিদায়ী মেয়র ক্যারন ম্যাজেস্কি সকল নেতাদের সাথে তাদের পরিচয় করে দেন।

শপথগ্রহণের পর মেয়র আমির গালিব সিটির সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। একই সঙ্গে সব দলমত সকল মানুষের জন্য সিটির দরজা খোলা থাকবে এবং সিটির স্বার্থ সংরক্ষণে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি। প্রতিশ্রুতি দিয়ে মেয়র আমির গালিব বলেন, একজন ডাক্তার যেমন ইচ্ছাকৃতভাবে ভুল ওষুধ দিয়ে রোগীকে সেবা দেন না; ঠিক তেমনি তিনি সিটির নেতা হিসাবে ইচ্ছাকৃতভাবে সিটির কোনো ক্ষতি করবেন না। সবশেষে উপস্থিত সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে মেয়র বলেন, শুভ নতুন বছর, শুভ নতুন হ্যামট্রামেক।

এ দিকে মুসলিম হলেও দায়িত্ব গ্রহণের পর রাষ্ট্র ও ধর্মকে আলাদা রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নবনির্বাচিত মেয়র আমির গালিব এবং সিটি কাউন্সিলের সদস্যরা। তারা বলেছেন, এটিই যুক্তরাষ্ট্রের আইন এবং তাদের ইচ্ছাও মূলত সেটিই।

বর্তমানে হ্যামট্রামেক সিটি কাউন্সিলে বাংলাদেশি দুইজন মুসলিম কাউন্সিলম্যান এবং একজন ইয়েমেনি মুসলিম কাউন্সিলম্যান রয়েছেন। তারা হচ্ছেন- কামরুল হাসান, নাঈম চৌধুরী ও মোহাম্মদ আলসোমিরি।

আরও পড়ুন : ওমিক্রন নিয়ন্ত্রণে শনি-রবিবার দিল্লিতে কারফিউ

কাউন্সিলর সদস্য মোহাম্মদ কামরুল হাসান বলেছেন, আমি নতুন নেতাদের সঙ্গে কাজ করার জন্য উন্মুখ। এখন হ্যামট্রামেকের মেয়র এবং কাউন্সিলর- সকলেই মুসলিম হলেও, সিটি হলের ভিতরে কিন্তু সবাই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। সিটি হলের ভিতরে কোনো ধর্ম থাকা উচিৎ নয়। ধর্ম থাকবে গির্জা, মসজিদ এবং মন্দিরে। সবকিছুর পর আমরা সবাই হ্যামট্রামেকের বাসিন্দা, আমরা এক সম্প্রদায়, আমরা সবাই ভাই-বোন।

শপথ নিয়ে অনন্য এক ইতিহাস গড়লেন মুসলিম মেয়র ও সব কাউন্সিলররা। এটা সিটির জন্য একটি মাইলফলক হিসেবে থাকবে। কারণ গত বছরের নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হ্যামট্রামেক সিটি নির্বাচনে এক বিরল ইতিহাসের সূচনা হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এবারেই প্রথম কোন সিটি নির্বাচনে মেয়র ও সকল কাউন্সিলর পদে মুসলিম প্রতিনিধিরা নির্বাচিত হন। বিরল এই ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকবে হ্যামট্রামেক সিটি ও সেখানকার ২৮ হাজার বাসিন্দা।

যুক্তরাষ্ট্রের সংশ্লিষ্ট সিটির একশ বছরের আমেরিকান রাজনৈতিক ইতিহাস ভেঙে দিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়ে এবারই প্রথমবারের মতো মুসলিম জনপ্রতিনিধিরা মিশিগান অঙ্গরাজ্যের হ্যামট্রামেক সিটির গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে অধিষ্ঠিত হলেন। যা এখন ‘টক অব দ্যা কান্ট্রি ইউএসএ’তে পরিণত হয়েছে।

আরও পড়ুন : দিল্লিতে ৫০ শতাংশ বাড়ল করোনার সংক্রমণ, বন্ধ স্কুল-জিম

উল্লেখ্য, এই হ্যামট্রামেক সিটি থেকেই ১৯৯৯ সালে উত্তর আমেরিকায় বাংলাদেশিদের মূল ধারার রাজনীতিতে সংযুক্তির সূচনা হয়। সাহাব আহমদ সুমিন এখানে প্রথম বাংলাদেশি-আমেরিকান মুসলিম হিসাবে নির্বাচিত হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড