• বুধবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মহারাষ্ট্রে জাল পাসপোর্ট-পরিচয়পত্রসহ ৪০ বাংলাদেশি আটক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:২১
মহারাষ্ট্রে জাল পাসপোর্ট-পরিচয়পত্রসহ ৪০ বাংলাদেশি আটক
মহারাষ্ট্রে আটককৃত বাংলাদেশিরা (ছবি : এএনআই)

দক্ষিণ এশিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ভারতে অবৈধভাবে অবস্থানের দায়ে দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্র থেকে ৪০ জন বাংলাদেশিকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) মুম্বাইয়ের ভিওয়ান্ডি ও এর আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

বৈধ কোনো কাগজপত্র ছাড়াই দীর্ঘদিন যাবত তারা দেশটিতে বসবাস করে আসছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। বুধবার (১ ডিসেম্বর) প্রতিবেদন প্রকাশের মাধ্যমে বার্তা সংস্থা এএনআই এবং সংবাদমাধ্যম টাইমস নাউ তথ্যটি জানিয়েছে।

ভারতীয় এক কর্মকর্তার বরাতে মিডিয়াগুলো বলছে, মুম্বাইয়ের পার্শ্ববর্তী থানে জেলার অধীনস্থ ভিওয়ান্ডি শহর ও এর আশপাশের এলাকা থেকে ওই ৪০ বাংলাদেশিকে আটক করা হয়। এ সময় অভিযুক্তদের অনেকের কাছ থেকে জাল পাসপোর্ট ও পরিচয়পত্র জব্দ করা হয়।

ভিওয়ান্ডি শহরের জোন-২ এর ডেপুটি কমিশনার অব পুলিশ (ডিসিপি) যোগেশ চভন গণমাধ্যমকর্মীদের বলেছেন, আটককৃত বাংলাদেশিরা বিভিন্ন স্থানে শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন এবং তিনটি পৃথক পুলিশ স্টেশনের অধীনস্থ এলাকায় বসবাস করতেন।

আরও পড়ুন : জলবায়ু পরিবর্তনে বিচ্ছেদ বাড়ছে সামুদ্রিক আলবাট্রসদের

তিনি জানিয়েছেন, আটককৃতদের কাছে ভারতে অবস্থানের বৈধ কোনো কাগজপত্র ছিল না। আর তাই আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় পাসপোর্ট আইনে এবং বিদেশি নাগরিক আইনে মামলা দায়ের করা হয়। এবার বেশ কয়েকটি তল্লাশি অভিযানের মাধ্যমে অভিযুক্তদের আটক করা হয়েছে।

ভারতীয় মিডিয়া টাইমস নাউ জানিয়েছে, মুম্বাইয়ের শান্তিনগর এলাকা থেকে মোট ২০ জন বাংলাদেশিকে এরই মধ্যে আটক করা হয়েছে। অন্য দিকে ভিওয়ান্ডি শহর এবং নারপোলি পুলিশ স্টেশন এলাকা থেকে ১০ জন করে বাংলাদেশিকে মঙ্গলবার আটক করা হয়।

আটকের সময় ওই ৪০ বাংলাদেশির কাছ থেকে জাল পাসপোর্ট, ভুয়া আধার কার্ড এবং প্যান (পার্মানেন্ট অ্যাকাউন্ট নাম্বার) কার্ড জব্দ করা হয়। এছাড়া তাদের কাছ থেকে ২৮টি মোবাইল ফোনও উদ্ধার করে পুলিশ। ভারতীয় মুদ্রায় যার মূল্য ৯৪ হাজার রুপি।

আরও পড়ুন : বিশ্বে ৫২ লাখ ৩২ হাজার প্রাণ নিল করোনা

মিডিয়াগুলো বলছে, উদ্ধারকৃত এসব ভুয়া নথিপত্রে মুম্বাই, গুজরাট এবং ভিওয়ান্ডির বিভিন্ন ঠিকানা ব্যবহার করেছিলেন আটককৃত বাংলাদেশিরা। এছাড়া তারা রেশন কার্ডও তৈরি করে ফেলেছিলেন। এর মাধ্যমে রাজ্যের দরিদ্র মানুষের মতো তারাও সুবিধা ভোগ করছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

এর আগে গেল ২৩ নভেম্বর মহারাষ্ট্রের নাগপুরের রেল স্টেশনের একটি ট্রেন থেকে ১৩ বাংলাদেশিকে আটক করে পুলিশ। তারা সবাই বাংলাদেশের নাগরিক এবং ভারতে পাচারের শিকার হয়েছিলেন।

আটককৃত ১৩ বাংলাদেশির মধ্যে নয়জন নারী, তিন শিশু এবং একজন অল্পবয়সী যুবক ছিলেন। তারা ভুয়া পরিচয়পত্র নিয়ে ভারতে প্রবেশ করেছিলেন এবং ট্রেনে করে পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতা থেকে মুম্বাই যাওয়ার পথে নাগপুর রেল স্টেশন থেকে আটক হন।

আরও পড়ুন : ‘ওমিক্রনে’ আতঙ্কিত না হতে বলছেন বাইডেন

সে সময় প্রতিবেদনে জানানো হয় – কিছুদিন আগে অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশ করেছিল ওই ১৩ বাংলাদেশি। এরপর কলকাতার হাওড়ায় একটি হোটেলে দুদিন অবস্থান করেছিলেন তারা। এ সময় পাচারকারীরা তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ২০ হাজার ভারতীয় রুপি করে নেয়। পরবর্তীকালে তারাই ওই ১৩ জনকে মুম্বাইয়ের ট্রেনে উঠিয়ে দেয়।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড