• সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সৌদির কয়েকটি শহরে হুথিদের ড্রোন হামলা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২১ নভেম্বর ২০২১, ০৯:২৪
সৌদির কয়েকটি শহরে হুথিদের ড্রোন হামলা
হুথিদের ড্রোন হামলায় বিধ্বস্ত সৌদির শহর (ছবি : সৌদি গেজেট)

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান সমর্থিত যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ ইয়েমেনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হুথি বিদ্রোহীরা প্রতিবেশী রাষ্ট্র সৌদি আরবের বেশ কয়েকটি প্রদেশে ১৪টি ড্রোন নিক্ষেপের দাবি করেছে। বিদ্রোহীরা বলছে, শনিবার (২০ নভেম্বর) দেশটির তেল কোম্পানি সৌদি আরামকোর স্থাপনাসহ বিভিন্ন শহরে ড্রোন দিয়ে আক্রমণ চালানো হয়েছে।

এ দিকে হামলার জবাবে ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের অন্তত ১৩টি লক্ষ্যবস্তুতে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট অভিযান পরিচালনার দাবি করেছে। শনিবার সৌদির রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সির করা প্রতিবেদনে এই আক্রমণ ও পাল্টা হামলার খবর দেওয়া হয়েছে। যদিও এতে কোনো ধরনের হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কি-না তাৎক্ষণিকভাবে কোনো পক্ষই তা নিশ্চিত করেনি।

ইয়েমেনে লড়াইরত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট বলছে, তারা সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলের দিকে ধেয়ে আসা তিনটি ড্রোন সফলতার সঙ্গে ধ্বংস করেছে। এছাড়া সৌদি আরব লক্ষ্য করে ছোড়া অপর একটি ড্রোন ইয়েমেনের আকাশেই ধ্বংস করা হয়েছে। গোষ্ঠীটির দুটি ব্যালিস্টিক মিসাইল উৎক্ষেপণে ব্যর্থ হয়েছে এবং তা ইয়েমেনের ভেতরে পড়েছে।

সৌদির রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন তেল কোম্পানি সৌদি আরামকো জানিয়েছে, তারা শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানাবে। হুথির সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারিয়া সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বলেছেন, রিয়াদ, জেদ্দা, জিজান, আভা এবং নাজরান প্রদেশে সামরিক স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে। জেদ্দায় সৌদি আরামকোর তেল শোধনাগারও লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন : গাজায় সহায়তা দেবে মিশর-কাতার

বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৫ সালের শুরুর দিকে হুথি বিদ্রোহীদের আক্রমণের মুখে সৌদি সমর্থিত ইয়েমেনের ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর আল হাদি ক্ষমতা ছেড়ে সৌদি আরবে পালিয়ে যান। ক্ষমতাচ্যুত এই প্রেসিডেন্টকে ফেরাতে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ইয়েমেনে হুথিদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে।

ভয়াবহ ওই অভিযানের শুরুর পর ইয়েমেনের রাজনৈতিক সংকটের অবসান হওয়ার পরিবর্তে তা আরও তীব্র হয়ে ওঠে। বর্তমানে ইয়েমেনে কার্যত দুই শাসকগোষ্ঠী সক্রিয় আছে। সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সামরিক সহযোগিতার ওপর ভর করে দেশটির দক্ষিণাঞ্চল এখনো মনসুর হাদির নেতৃত্বাধীন সরকারের নিয়ন্ত্রণে আছে, অপর দিকে উত্তরাঞ্চল সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে হুথি বিদ্রোহীরা।

আরও পড়ুন : মার্কিন সংবিধানের মূল কপি ৩৬৯ কোটি টাকায় বিক্রি

উল্লেখ্য, ইয়েমেনের এই সংঘাতকে মধ্যপ্রাচ্যে আধিপত্যের লড়াইয়ে সৌদি-ইরানের ‘ছায়াযুদ্ধ’ হিসেবে দেখা হয়। টানা গৃহযুদ্ধ ও সংঘাত চলার ফলে প্রায় ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ এবং এক সময়ের সচ্ছল এই রাষ্ট্র।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড