• বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

হেজবুল্লাহর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে কুয়েতে ১৮ জন আটক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৮ নভেম্বর ২০২১, ১৭:১৩
হেজবুল্লাহর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে কুয়েতে ১৮ জন আটক
আক্রমণের জন্য প্রস্তুত হেজবুল্লাহর যোদ্ধারা (ছবি : আল-জাজিরা)

মধ্যপ্রাচ্যের ইসলামিক রাষ্ট্র লেবাননের শিয়াপন্থি রাজনৈতিক দল হেজবুল্লাহকে অর্থ সহায়তা দেওয়ার অভিযোগে ১৮ সন্দেহভাজনকে আটক করেছে কুয়েতের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। দেশটির জাতীয় মিডিয়া আল-কাবাস ও আল-রাইয়ের বরাতে বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) প্রতিবেদন প্রকাশের মাধ্যমে তথ্যটি নিশ্চিত করেছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

আল-কাবাসের প্রতিবেদনে বলা হয়, শুরুতে এই ১৮ সন্দেহভাজনকে আটকের নির্দেশ দেন কুয়েতের বিচারবিভাগ। মূলত এর পরপরই তাদেরকে দেশটির কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রাখা হয়েছে।

একই সঙ্গে তাদের বিরুদ্ধে হেজবুল্লায় যে অর্থায়নের অভিযোগ এসেছে- সেই বিষয়ে আগামী ২১ দিনের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য কুয়েতের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যতদিন তদন্ত শেষ না হয়, ততদিন এই ১৮ জনকে কারাগারেই থাকতে হবে।

বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত জানতে কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল রয়টার্স। যদিও মন্ত্রণালয়ের কোনো মুখপাত্র এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে মন্তব্য করতে সম্মত হননি।

বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৬ সালে লেবাননের প্রধান রাজনৈতিক দল এবং শিয়াপন্থি মুসলিমদের অন্যতম বৈশ্বিক সংগঠন হেজবুল্লাহকে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছিল কুয়েত।

আরও পড়ুন : ইসরায়েলে ব্যাপক সাইবার আক্রমণ চালিয়েছে ‘মুসার লাঠি’

লেবাননের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে শিয়াপন্থি সংগঠন হেজবুল্লাহর প্রভাব বাড়তে থাকায় মধ্যপ্রাচ্যের উপসাগরীয় দেশগুলো লেবানন ইস্যুতে দিন দিন বিরূপ হয়ে উঠছে। ফলে মধ্যপ্রাচ্যসহ আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে এক প্রকার কূটনৈতিক সমস্যায় পড়েছে মুসলিম অধ্যুষিত দেশটি।

মাস খানেক আগে যুদ্ধবিধ্বস্ত রাষ্ট্র ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন কোয়ালিশন বাহিনীর অভিযানের সমালোচনা করেছিলেন লেবাননের তথ্য মন্ত্রী জর্জ কোরদাহি। মূলত তার সমালোচনার পরপরই কুয়েত, সৌদি আরব এবং বাহরাইন একযোগে নিজ নিজ দেশ থেকে লেবাননের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করে। একই সঙ্গে ওই দেশে নিযুক্ত নিজেদের দূতদেরও ফিরিয়ে নেয় তারা।

পরবর্তীকালে সৌদির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, কেবল মন্ত্রীর সমালোচনার জন্য পদক্ষেপটি নেওয়া হয়েছে- এমন নয় বরং এটি ছিল লেবাননের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে ইরান সমর্থিত হেজবুল্লাহর ‘আধিপত্যের’ প্রতিবাদ।

দশকের পর দশক জুড়ে তিক্ত কূটনৈতিক সম্পর্কের মধ্যে রয়েছে সুন্নি মুসলিমদের আন্তর্জাতিক কেন্দ্র সৌদি আরব ও শিয়া মুসলিমদের বৈশ্বিক কেন্দ্র ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। গেল কয়েক দশকে দুদেশের মধ্যে বিভিন্ন ইস্যুতে একাধিকবার সংঘাতও হয়েছে।

আরও পড়ুন : গাজায় সহায়তা দেবে মিশর-কাতার

মধ্যপ্রাচ্যের এই দুই পরাশক্তির তিক্ত সম্পর্ক যেন বড় কোনো বিপর্যয় সৃষ্টি না করে, সে জন্য দীর্ঘদিন যাবত মধ্যস্থতা করেছে কুয়েত। যদিও ২০১৬ সালে কুয়েতের শিয়া সম্প্রদায়ের কয়েক জনের বিরুদ্ধে ইরান ও হেজবুল্লাহর হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির বিষয়ে প্রমাণ পাওয়া যায়।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড