• বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আদালতে জান্তার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান সু চির

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৭
আদালতে জান্তার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান সু চির
মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চি (ছবি : রয়টার্স)

মিয়ানমারের সাবেক বেসামরিক সরকারের প্রধান ও গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চি আদালতে দেওয়া নিজের প্রথম সাক্ষ্যে তার বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন। এর আগে বার্মিজ জান্তা সরকার তার বিরুদ্ধে জনসাধারণের মনে উদ্বেগ সৃষ্টির জন্য উসকানি প্রদানের অভিযোগ এনেছিল।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার খবর অনুযায়ী, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে বিতর্কিত সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে বেসামরিক সরকারকে অপসারণের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। পরবর্তীকালে সু চিসহ রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতার করা হয়।

জান্তা সরকার ক্ষমতা দখলের পর থেকেই মিয়ানমারে একের পর এক বিপর্যয় নেমে আছে, আর এতেই সর্বত্র অশান্তি বিরাজ করছে। সামরিক সরকারের পক্ষ থেকে ৭৬ বছর বয়সী অং সান সু চির বিরুদ্ধে আদালতে অসংখ্য অভিযোগ আনা হয়েছে এবং তার বিচার চলছে। অপরাধ প্রমাণিত হলে ফের বছরের পর বছর কারাগারেই দিন কাটাতে হতে পারে সু চিকে।

ফেব্রুয়ারি মাসে সু চির দল পৃথক বিবৃতি প্রকাশ করেছিল। যেখানে সামরিক শাসনের নিন্দা ও আন্তর্জাতিক সংগঠনকে তাদের সঙ্গে কাজ না করার আহ্বান জানানো হয়েছিল। নৃশংস ঘটনাটিকে উসকানিমূলক হিসেবে আখ্যা দিয়েই জান্তা সরকার সু চির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনে। যদিও মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) আদালতে দেওয়া সাক্ষ্যে তার বিরুদ্ধে উসকানিমূলক আচরণের অভিযোগটি আনা হয়েছে তা অস্বীকার করেছেন সু চি।

আরও পড়ুন : মুক্তি পেয়েছেন সুদানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী

পরিচয় গোপন রাখার শর্তে তার আইনজীবী ও দলের একজন সদস্য বলেন, সু চি খুব ভালোভাবেই নিজেকে নির্দোষ বলে প্রমাণ করতে পেরেছেন। আইনজীবী এর বাইরে কোনো তথ্য দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। কেননা মামলার শুনানির প্রসঙ্গে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

গত বছরের নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনের পর মিয়ানমারের নতুন সংসদ বসার আগেই অং সান সু চি এবং বেসামরিক সরকারের সিনিয়র সদস্যদের আটক করে সামরিক বাহিনী।

আরও পড়ুন : ইরাক-সিরিয়ায় মিশনের মেয়াদ বাড়াল তুরস্ক

এ দিকে গেল ১ জানুয়ারি বিতর্কিত সামরিক অভ্যুত্থানের পর দেশব্যাপী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। জান্তাবিরোধী আন্দোলন দমনে সাধারণ মানুষের ওপর ব্যাপক শক্তি প্রয়োগ করা হয়। চলমান সহিংসতায় এখন পর্যন্ত দেশটিতে শিশুসহ এক হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড