• রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

গঙ্গায় দূষণ

ভারত থেকে বাংলাদেশে ছুটছে ইলিশের ঝাঁক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:০১
ভারত থেকে বাংলাদেশে ছুটছে ইলিশের ঝাঁক
বাংলাদেশের বাজারে বিক্রির জন্য প্রস্তুত ইলিশ (ছবি : দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া)

ভারতে গঙ্গা নদীর মোহনায় এখন আর আগের মতো ইলিশের দেখা মিলছে না। ফলে হা-হুতাশ করছেন দেশটির মৎস্যজীবীরা। বিশেষজ্ঞদের মতে, গঙ্গায় দূষণের মাত্রা বর্তমানে এতটাই বৃদ্ধি পেয়েছে যে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে ইলিশ। ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশের অভিমুখ বর্তমানে বাংলাদেশের পদ্মার পাড়।

সম্প্রতি সাউথ এশিয়া নেটওয়ার্ক অব ড্যাম রিভার অ্যান্ড পিপলস বিষয়টি নিয়ে একটি প্রতিবেদন পেশ করেছে। যেখানে গঙ্গায় ইলিশের দেখা না মিলার কারণ হিসেবে অতিরিক্ত দূষণকেই অধিক মাত্রায় দায়ী করা হয়েছে। সংস্থাটির রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, গঙ্গা থেকে অচিরেই উধাও হতে চলেছে ইলিশ ঝাঁক।

বিশ্লেষকদের মতে, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নদীর পাড় বরাবর গড়ে ওঠা শতাধিক পৌরসভার ময়লা-আবর্জনা ও কলকারখানার বর্জ্যে গঙ্গায় দূষণের মাত্রা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে চলে গেছে।

তাদের মতে, ডিম সংরক্ষণ করে রাখার জন্য ইলিশের মিঠা পানি প্রয়োজন। সে জন্যই তারা গঙ্গায় প্রবেশ করে। যদিও দূষণের ফলে সেখানে লবণের মাত্রা বর্তমানে অত্যধিক বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে ইলিশ এখন গঙ্গার মোহনা থেকে ফিরে যাচ্ছে। গঙ্গা থেকে মুখ ঘুরিয়ে নিয়ে সুস্বাদু এই মাছটির অভিমুখ এখন প্রতিবেশী রাষ্ট্রটির দিকে। বাংলাদেশের পদ্মা পাড়ে এখন জাল ফেললেই পাওয়া যাচ্ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ।

আরও পড়ুন : যোদ্ধাদের ইউনিফর্ম পরতে বলছে তালেবান

বাংলাদেশের মৎস্য বিভাগের এক পরিসংখ্যানে বলা হয়, গত ২ বছরের তুলনায় এবার ১৯ শতাংশ বেশি ইলিশ ধরা পড়েছে। শুধু পদ্মার পাড়েই নয়, মিয়ানমার উপকূলেও এখন প্রচুর ইলিশের সন্ধান মিলছে।

দেশটির মৎস্য দফতরের তথ্য মতে, পদ্মার পাড় বরাবর ভারী শিল্প, কলকারখানা তেমন গড়ে ওঠেনি। তাই এখনো পদ্মার মোহনা ইলিশের কাছে ব্রাত্য হয়ে ওঠেনি। যদিও গঙ্গার দূষণ বাড়ায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে মৎস্যজীবীদের। তাদের এখন মাথা চাপড়ানো ছাড়া কোনো পথ নেই।

আরও পড়ুন : ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে শক্তিশালী ড্রোন হামলা

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে যখন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ থাকে তখন জেলেদের মাসে ৪০ কেজি করে খাদ্য সহায়তা দেয় মৎস্য অধিদফতর। বছরের মার্চ মাসে নদীতে জাটকার প্রাচুর্য সবচেয়ে বেশি থাকে বলে এ মাসে পালন করা হয় জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ। এরই মধ্যে এসব উদ্যোগের মিলেছে সুফল।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড