• শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ইসরায়েলের কাছে হামলার তথ্যপ্রমাণ চেয়েছে এপি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ জুন ২০২১, ১১:০৫
ইসরায়েলের কাছে হামলার তথ্যপ্রমাণ চেয়েছে এপি
গাজায় আল-জাজিরা ও এপির ভবন গুঁড়িয়ে দিচ্ছে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী (ছবি : আল-জাজিরা)

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় মার্কিন সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) ভবনে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ গোষ্ঠী হামাস গোয়েন্দা কার্যালয় চালাচ্ছিল দাবি করে ভবনটি গুঁড়িয়ে দিয়েছিল ইহুদিবাদী দখলদার রাষ্ট্র ইসরায়েল। এবার তাদের দাবির সপক্ষে প্রমাণ চাইল এপি।

গত মে মাসে ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের সঙ্গে তীব্র লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়েছিল দখলদার ইসরায়েল। একদিকে গাজা থেকে ইসরায়েলি শহরগুলো লক্ষ্য করে একের পর এক রকেট হামলা চালিয়েছে হামাস। অন্য দিকে গাজায় টানা বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল।

তেমনই একটি হামলায় গাজার জালা টাওয়ার গুঁড়িয়ে দেয় ইসরায়েলি বাহিনী। ওই টাওয়ারেই অফিস ছিল এপি, কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাসহ একাধিক সংবাদ সংস্থার। ইসরায়েলের হামলায় পুরো ভবনটাই ধুলোয় মিশে যায়।

গত মঙ্গলবার ইসরায়েল সরকারিভাবে দাবি করেছে, ওই ভবনে হামাসের ইন্টেলিজেন্স উইং কাজ করছিল। সেখান থেকেই ইসরায়েলের আয়রন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা অকেজো করে রকেট হামলার পরিকল্পনা করছিল তারা। এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতেই ভবনটিতে হামলা চালানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : ইরাকে বিমান ঘাঁটিতে দফায় দফায় রকেট হামলা (ভিডিয়ো)

তবে এপি বলেছে, ইসরায়েলের বক্তব্যের সপক্ষে তথ্যপ্রমাণ দিতে হবে। অবশ্য এখন পর্যন্ত ইসরায়েল এ ধরনের কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি।

যদিও ইসরায়েলের বক্তব্যের সঙ্গে একমত নয় জালা টাওয়ারের মালিক এবং অন্য সংবাদ সংস্থাগুলো। ভবনটির মালিক জানিয়েছেন, সেখান থেকে আল-জাজিরার জিনিসপত্রগুলো বের করার জন্য মাত্র ১০ মিনিট সময় চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই সময়টুকুও দেয়নি দখলদার বাহিনী।

আরও পড়ুন : খাদ্য সুরক্ষায় বাংলাদেশের চেয়েও পিছিয়ে ভারত

ঘটনাটিকে যুদ্ধাপরাধ বলে মন্তব্য করেছে রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস (আরএসএফ)।

সূত্র : ডয়েচে ভেলে

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড