• বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পাকিস্তানে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ৫১

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৮ জুন ২০২১, ০৯:৪৯
পাকিস্তানে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ৫১
দুর্ঘটনায় বিধ্বস্ত ট্রেনের ধ্বংসাবশেষ (ছবি : দ্য ডন)

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের ঘোটকি জেলায় যাত্রীবাহী দুটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে মৃতের সংখ্যা বাড়ছেই। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী ভয়াবহ এ দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫১ জনে। এছাড়া দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া ট্রেনের বগিগুলোর মধ্যে এখনো ১৫-২০ জন আটকা পড়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর দ্য ডনের।

ঘোটকি জেলার এসএসপি উমর তুফাইলের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার (৭ জুন) সকালে সংঘর্ষের পরপরই ৩০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে আরও ১০ জনের মরদেহ পাওয়া যায়। সর্বশেষ রাতে উদ্ধারকর্মী ও স্থানীয় বাসিন্দারা ১১টি মরদেহ উদ্ধার করে।

তিনি বলেছিলেন, এখন পর্যন্ত মোট ৫১টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এর মধ্যে ৩৪ জনের পরিচয় মিলেছে। বাকিদের নাম-পরিচয় এখন পর্যন্ত নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। এছাড়া গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন আরও অন্তত ১০০ জন যাত্রী।

পুলিশ কর্মকর্তা উমর বলেন, ট্রেনে থাকা বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য এখনো নিখোঁজ। ধারণা করা হচ্ছে- তারা মারা গেছেন। এছাড়া আরও ১৫-২০ জনের খোঁজ মিলছে না। তারা যদি ট্রেনের নিচে চাপা পড়েন, তবে বেঁচে থাকার আশা ক্ষীণ।

আরও পড়ুন : ১২০০ ইসরায়েলি গোলা ধ্বংস করেছে গাজার বিশেষজ্ঞরা

রেলওয়ের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, মিল্লাত এক্সপ্রেস নামের একটি ট্রেন করাচি থেকে সারগোদার দিকে যাচ্ছিল। পথে রাইতি রেলওয়ে স্টেশনের কাছে এটি লাইনচ্যুত হয়। এ সময় রাওয়ালপিন্ডি থেকে ছেড়ে আসা স্যার সাঈদ এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। এতে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে উদ্ধারকারীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে যান এবং উদ্ধার কাজ শুরু করেন।

এ দিকে ভয়াবহ এ ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এক টুইট বার্তায় ইমরান লিখেছেন, ভয়াবহ এ দুর্ঘটনায় আমি হতবাক। কীভাবে এ দুর্ঘটনা ঘটল সে সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করা হবে।

গত বছরের ২১ জুলাই পাঞ্জাব প্রদেশের শেখুপুরায় করাচি থেকে লাহোরগামী শিখ তীর্থযাত্রী বহনকারী একটি ভ্যানকে ধাক্কা দিলে ২১ জন নিহত হয়। এছাড়া ২০১৯ সালের অক্টোবরে করাচি থেকে রাওয়ালপিন্ডিগামী ট্রেনের একটি গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অন্তত ৭০ জন যাত্রী মারা যান।

আরও পড়ুন : ড্রোন দিয়ে করোনা শনাক্ত করছে মালয়েশিয়া

পাকিস্তানের রেল বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, ২০১২-২০১৭ সালের মধ্যে দেশটি মোট ৭৫৭টি রেল দুর্ঘটনা ঘটেছে। অর্থাৎ গড়ে প্রতিবছর ১২৫টি দুর্ঘটনা ঘটেছে।

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড