• মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সিনেমা হল নয়, ভারতে শ্মশানের গেটে ‘হাউসফুল’ নোটিশ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৪ মে ২০২১, ১৩:২৫
সিনেমা হল নয়, ভারতে শ্মশানের গেটে ‘হাউসফুল’ নোটিশ
কর্ণাটকের শ্মশানের গেটে টাঙানো ‘হাউসফুল’ নোটিশ (ছবি : জি নিউজ)

মহামারি করোনা ভাইরাসের থাবায় দিশেহারা দক্ষিণ এশিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ভারতের বর্তমান পরিস্থিতি। এমনকি বেসামাল সেখানকার চিকিৎসা ব্যবস্থাও। বর্তমানে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা রয়েছে সাড়ে তিন হাজারের আশেপাশে। এমন পরিস্থিতিতে হাসপাতালের মর্গ ও শ্মশানগুলোতে উপচে পড়ছে মৃতের সংখ্যা। মর্গের বাইরেই পড়ে আছে মৃতদেহের সারি। শেষকৃত্যের জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে স্বজনদের।

এমনকি মরদেহ শেষকৃত্যের জায়গা না থাকায় শ্মশানের গেটে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে ‘হাউসফুল’ নোটিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্ণাটকের চামরাজপেটের শ্মশানে।

ভারতীয় মিডিয়া ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে জানানো হয়, করোনায় আক্রান্ত হয়ে বিপুল সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হচ্ছে প্রতিদিন। এর পাশাপাশি স্বাভাবিক মৃত্যুও হচ্ছে অনেকের। আর তাই মৃতদেহ সৎকার করার জায়গার অভাবে শ্মশানের বাইরে ‘হাউসফুল’ সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দিয়েছে শ্মশান কর্তৃপক্ষ।

ইতোমধ্যেই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরালও হয়েছে এই ছবি। অপরদিকে কর্ণাটকের রাজধানী বেঙ্গালোরের ১৩টি ইলেকট্রিক চুল্লির বাইরেও ঝুলছে হাউসফুল নোটিশ। করোনায় প্রতিদিন বহু সংখ্যক মানুষের মৃত্যুর কারণেই সৃষ্টি হয়েছে এই পরিস্থিতির।

আরও পড়ুন : মেক্সিকোতে মেট্রোরেল দুর্ঘটনায় নিহত ১৫ (ভিডিয়ো)

মিডিয়াগুলো বলছে, কর্ণাটকের চামরাজপেটের শ্মশানে প্রতিদিন ২০টি মৃতদেহ ঢুকিয়ে নিয়ে গেটে ‘হাউসফুল’ সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। করোনায় মৃতদের সৎকারের জন্য বেঙ্গালোর মহানগর পালিকে-কে (বিবিএমপি) শহরের পাশেই ২৩০ একর জমি দিয়েছে সরকার। মূলত করোনায় মৃতদের সৎকারের কাজই হচ্ছে এই জায়গায়। তারপরেও শহরের শ্মশানে লাইনের সৃষ্টি হচ্ছে। যা প্রশাসনের উদ্বেগ বাড়াচ্ছে।

কর্ণাটকে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ৪৪ হাজার ৪৩৮ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ২৩৯ জন। রাজ্যটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে ১৬ লাখের ঘর। মোট মৃত্যুর সংখ্যাও পার করেছে ১৬ হাজারের গণ্ডি।

আরও পড়ুন : স্বাধীনতা সংগ্রামী বাবাই আদর্শ ছিল মমতার

মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) পর্যন্ত কর্ণাটকে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা প্রায় ৪ লাখ ৪০ হাজার। একসঙ্গে বিপুল সংখ্যক এই করোনা রোগীর চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে রাজ্যটি। ফলে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। যার জেরে সিনেমা হল নয়, রাজ্যটির শ্মশানের গেটে ঝুলছে হাউসফুল নোটিশ।

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড