• মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মিয়ানমারে গোপনে সামরিক প্রশিক্ষণ নিচ্ছে তরুণরা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৯ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫০
মিয়ানমারে গোপনে সামরিক প্রশিক্ষণ নিচ্ছে তরুণরা
মিয়ানমারে গোপনে সামরিক প্রশিক্ষণ নিচ্ছে বার্মিজ তরুণরা (ছবি : রয়টার্স)

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রিত বিতর্কিত জান্তা শাসকদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য অন্তত ১২০ তরুণ সামরিক প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, মিয়ানমারের সীমান্ত এলাকায় বিদ্রোহী সংগঠনগুলোর কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়ার দৃশ্য দেশটিকে আরও গভীর সংকটের দিকে নিয়ে যাবে।

সম্প্রতি প্রকাশিত এক ভিডিয়োতে নিজেদেরকে ‘সেনাবিরোধী নতুন শক্তি’ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে একটি দল। সেখানে বনাঞ্চলে ভোরের আলোয় বার্মিজ তরুণদের প্রশিক্ষণ নিতে দেখা গেছে। ভিডিয়োতে তারা মিয়ানমারের ভাষায় জনগণের জন্য লড়াইয়ে তাদের প্রস্তুতির কথা বলেছেন।

খবরে বলা হয়েছে, ভিডিয়োটি প্রকাশ করা মিয়ানমারের ওই সংগঠনটি নিজেদেরকে চলমান সেনা শাসনবিরোধী নতুন শক্তি হিসেবে বিবেচনা করছে। সংবাদ এজেন্সি রয়টার্স এই সংগঠনটির দাবি করা তথ্যগুলো নিরপেক্ষভাবে যাচাই করতে পারেনি। মিয়ানমারের সেনাবাহিনীও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

তবে সেনাবাহিনী পূর্বে বিক্ষোভরত গণতন্ত্রকামীদের ‘দাঙ্গাবাজ’ হিসেবে উল্লেখ করে তাদেরকে জাতীয় নিরাপত্তার জন্যে হুমকি বলে মন্তব্য করে।

সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা মন মন জানিয়েছেন, সেনা অভ্যুত্থান বিরোধীদের নিয়ে তাদের ইউনাইটেড ডিফেন্স ফোর্স গড়ে তোলা হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা এখানে ১০ দিন থেকে তিন মাসের প্রশিক্ষণ নিচ্ছি। আমাদের সবার লক্ষ্য হলো বিপ্লব।

আরও পড়ুন : রাশিয়ার টিকা ‘স্পুটনিক ফাইভ’ নিয়ে যা জানা যাচ্ছে

প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়া অধিকাংশের বয়স ২০ এর কোঠায় জানিয়ে তিনি বলেন, কয়েকজন আছেন যাদের বয়স ৩৫ বছর, কারো বয়স ৪০ বছর। বর্তমানে ২৫০ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। তাদের মধ্যে ২০ জন নারী। মিয়ানমারজুড়ে তাদের সদস্য সংখ্যা এক হাজারের মতো। বিদ্রোহী সংগঠন কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়নের (কেএনইউ) অধীনে এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

কেএনইউর পররাষ্ট্র বিভাগের প্রধান পাদোহ সো তাও নে রয়টার্স জানিয়েছেন, তিনি প্রশিক্ষণের বিষয়টিকে নিশ্চিত করবেন না, আবার অস্বীকারও করবেন না।

প্রশিক্ষণ গ্রহণের ওই ভিডিয়োতে দেখা গেছে, কালো পোশাকে প্রশিক্ষণার্থীরা শরীরচর্চা ও ক্লাসরুমে অধ্যয়ন করছেন। ক্লাসরুমে প্রশিক্ষণার্থীদের একজন প্রশ্ন করছেন, ‘তোমরা কী করছ?’ প্রশিক্ষণার্থীরা তখন সমস্বরে বলেন, ‘প্রশিক্ষণ নিচ্ছি।’ এরপর প্রশ্ন করা হয়, ‘কেন প্রশিক্ষণ নিচ্ছ?’ এর উত্তরে বলা হয়, ‘লড়াই করতে’ এবং ‘কাদের জন্যে লড়াই?’ এমন প্রশ্নের উত্তরে বলা হয়, ‘জনগণের জন্যে’।

প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে তার বড় ছেলেও রয়েছেন উল্লেখ করে মন মন জানিয়েছেন, এখানে ১০ দিনে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।সেই প্রশিক্ষণে শেখানো হয় কীভাবে একত্রিত হতে হবে এবং কীভাবে ছড়িয়ে পড়তে হবে। এ ছাড়াও, তাদেরকে দিয়ে তিনটি গুলি ছোড়ানো হবে। তিনি বলেন, আমরা কোনো দল বা ব্যক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করছি না। আমাদের লড়াই প্রচলিত ব্যবস্থার বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন : ক্ষমতা গ্রহণের ১০০ দিন পর কংগ্রেসে বাইডেন

এ বিষয়ে গণতন্ত্রকামীদের ন্যাশনাল ইউনিটি গভর্নমেন্ট কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড