• মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অক্সিজেন সংকটে ভারতে আরও ৭ করোনা রোগীর মৃত্যু

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৮ এপ্রিল ২০২১, ১২:১৬
অক্সিজেন সংকটে ভারতে আরও ৭ করোনা রোগীর মৃত্যু
ভারতে করোনা আক্রান্ত রোগীকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে (ছবি : দ্য হিন্দু)

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অক্সিজেনের অভাবে ভারতে আরও ৭ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। দেশটির উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের মিরাটের পৃথক দুইটি হাসপাতালে মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) ঘটনাগুলো ঘটেছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, উত্তরপ্রদেশের মিরাটের বেসরকারি আনন্দ হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে মারা যান করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত তিনজন রোগী। অন্য দিকে একইদিনে রাজ্যের কেএমসি হাসপাতালে অক্সিজেন না পেয়ে মারা যান আরও ৪ করোনা রোগী। গোটা ঘটনায় হাসপাতালে প্রয়োজনের তুলনায় অক্সিজেনের স্বল্পতার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় নতুন করে সমালোচনার মুখে পড়েছে যোগী আদিত্যনাথ শাসিত রাজ্য সরকার। করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য রাজ্যে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন ও ওষুধের ঘাটতি নেই বলে দাবি করার মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অক্সিজেন না পেয়ে হাসপাতালেই প্রাণ হারালেন ওই ৭ রোগী। অনেকে আবার করোনা রোগী নিয়ে তথ্য গোপন করার অভিযোগও তুলেছেন যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে।

এনডিটিভি জানিয়েছে, অক্সিজেনের সংকটে ভুগতে থাকা মিরাটের ওই হাসপাতাল দু’টি দেশটির রাজধানী নয়াদিল্লি থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। মঙ্গলবার সেখানে ভর্তি থাকা গুরুতর অসুস্থ করোনা রোগীদের আত্মীয় স্বজনকে অক্সিজেন জোগাড় করে আনতে বলা হয়। অনেক চেষ্টা করেও অক্সিজেনের ব্যবস্থা করতে না পারায় হাসপাতালেই মারা যান তারা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, অক্সিজেনের অভাবেই মারা গেছেন ওই ৭ রোগী।

আরও পড়ুন : করোনায় শনাক্ত-মৃত্যুতে নতুন রেকর্ড ভারতে

আনন্দ হাসপাতালের মেডিকেল সুপারিন্টেনডেন্ট ডা. সুভাষ যাদব বলেছেন, হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত অক্সিজেনের অভাব রয়েছে। আমাদের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করোনা রোগীদের জন্য প্রতিদিন অন্তত ৪০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের প্রয়োজন। সেখানে আমরা পাচ্ছি মাত্র ৯০টি। ফলে প্রয়োজন হলেও অক্সিজেনের অভাবে ভুগতে হচ্ছে অনেক রোগীকে।

সূত্র : এনডিটিভি

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড