• বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ক্যাপিটাল ভবনে হামলার পর ট্রাম্প-পেন্সের প্রথম সাক্ষাৎ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:২০
ক্যাপিটাল ভবনে হামলার পর ট্রাম্প-পেন্সের প্রথম সাক্ষাৎ
বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স (ছবি : বিবিসি নিউজ)

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটাল ভবনে ট্রাম্প সমর্থকদের সন্ত্রাসী হামলার পর সোমবার (১১ জানুয়ারি) প্রথমবারের মতো দেখা করেছেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।

প্রশাসনের দুই কর্মকর্তার বরাতে মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) মার্কিন মিডিয়া সিএনএন জানিয়েছে, ক্যাপিটালে হামলার ঘটনার পর প্রথমবারের মতো গতকাল কথা বলেছেন তারা।

প্রশাসনের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমটিকে জানিয়েছে, ট্রাম্প ও পেন্স ওভাল অফিসে বৈঠক করেছেন। তারা সামনের সপ্তাহ নিয়ে আলোচনা করেছেন। প্রশাসনের কাজ ও সাফল্যের শেষ চার বছর নিয়েও তাদের কথা হয়েছে।

ওই কর্মকর্তা আরও বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্ট আবারও একমত হয়েছেন যে, যারা আইন ভঙ্গ করেছেন ও ক্যাপিটাল ভবনে গত সপ্তাহে সহিংসতা চালিয়েছেন তারা সাড়ে সাত কোটি আমেরিকান সমর্থিত “আমেরিকা ফার্স্ট” আন্দোলনের প্রতিনিধিত্ব করেন না।

আরও পড়ুন : ইতিহাস রচনা করলেন ভারতের চার নারী পাইলট

তারা দুজনই মেয়াদের শেষ সময়ে দেশের পক্ষে কাজ চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সংবাদ প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গত চার বছরেরও বেশি সময়ের বিশ্বস্ত সহযোগী মাইক পেন্সের সঙ্গে সম্প্রতি ট্রাম্পের খারাপ আচরণ পেন্সের সহযোগীদের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি করেছে। ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠদের অনেকেই, যারা পেন্সকে সবচেয়ে অনুগত হিসেবে দেখেন, তারাও পেন্সের সঙ্গে এমন আচরণকে ‘অন্যায্য’ বলে মনে করছেন।

কংগ্রেসে ইলেক্টোরাল কলেজের ভোট নিয়ে অভিযোগ উপস্থাপনের জন্য ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের উপর চাপ বাড়িয়ে ছিলেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

সিনেট নির্বাচনের প্রচারণার সময় জর্জিয়ার সমাবেশে ভাইস প্রেসিডেন্টকে একজন ‘দুর্দান্ত মানুষ’ হিসেবে উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেছিলেন, আমি আশা করি, মাইক পেন্স আমাদের সঙ্গে আছেন। যদি তিনি এ বিষয়ে এগিয়ে না আসেন তবে আমি তাকে ততটা পছন্দ করব না।

আরও পড়ুন : কেন জানুয়ারিতেই শপথ নেন মার্কিন প্রেসিডেন্টরা?

গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটাল ভবনে হামলার সময় যৌথ অধিবেশনে সভাপতিত্ব করা ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্সকে পাহারা দিয়ে অধিবেশন কক্ষ থেকে বের করে নিয়েছিল পুলিশ।

তিনি দিনটিকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের ‘কালো দিন’ বলে মন্তব্য করেছেন।

সিএনএন জানিয়েছে, মাইক পেন্স প্রায়ই ট্রাম্পের প্রতি তার শ্রদ্ধার জন্য ঘনিষ্ঠদের উপহাসের পাত্র হয়েছেন। তবে ক্ষমতায় থাকার শেষ দিনগুলোতে তাকে শান্তভাবে প্রতিবাদী অবস্থান নিতে দেখা গেছে।

গত সপ্তাহে ডেমোক্রেট সিনেটররা রিপাবলিকান ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্সকে চিঠি পাঠিয়ে ট্রাম্পকে মেয়াদের আগেই প্রেসিডেন্ট পদ সরিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন : তেলের পর এবার গ্যাস মজুদ করছে ভারত

পেন্সের এক উপদেষ্টা গণমাধ্যমকে বলেছেন, ট্রাম্পকে হোয়াইট হাউস থেকে সরিয়ে দিতে ২৫তম সংশোধনী ব্যবহারের বিরোধিতা করেছেন তিনি।

তবে বিষয়টি নিয়ে পেন্স এখন পর্যন্ত প্রকাশ্যে কিছু বলেননি।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এমনও হতে পারে, তিনি ইচ্ছা করেই অভিশংসনের ধারণাটিকে পুরোপুরি বাতিল করেননি।

ভাইস প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, অবশিষ্ট দিনগুলোতে পেন্স সহযোগী ও বিরোধীদের কাছে সরকারের কার্যকারিতা ও সাফল্যকেই তুলে ধরা চেষ্টা করবেন।

আরও পড়ুন : জম্মু-কাশ্মীরে শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাত

গতকাল ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে পেন্সের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে, শেষ মুহূর্তে সরকারের কার্যকারিতা ও সাফল্য তুলে ধরতে ট্রাম্পের সঙ্গে শীতল সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে আগ্রহী পেন্স।

সিএনএন প্রতিবেদনে বলা হয়, ইতোমধ্যে বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্সকে তার সহযোগীরা সংবর্ধনা জানিয়েছেন। হোয়াইট হাউসের ক্যাবিনেট কক্ষে যে চেয়ারটিতে পেন্স বসতেন সেটি আইসেনহাওয়ার এক্সিকিউটিভ অফিস বিল্ডিংয়ে নিয়ে আসা হয়েছে।

পেন্সকে শ্রদ্ধা জানাতে তার সহযোগীরা কাঁধে তুলেই চেয়ারটি নিয়ে গেছেন। সে সময় পেন্সকে দাঁড়িয়ে অভ্যর্থনা জানিয়েছিলেন তারা।

গত সপ্তাহে ট্রাম্পের ক্ষেত্রে এর বিপরীত চিত্র দেখা গেছে উল্লেখ করে প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ট্রাম্পের অনেক ঘনিষ্ঠ সহযোগীও এখন ক্যাপিটাল ভবনে হামলার ঘটনায় বিব্রত। সহযোগীদের অনেকেই পদত্যাগ করেছেন, অনেকেই পদত্যাগের বিষয়টি বিবেচনা করছেন বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন : ট্রাম্প সমর্থকদের ৭০ হাজার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করল টুইটার

সাপ্তাহিক ছুটির দিনটি মূলত একা কাটিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি ক্যাম্প ডেভিডে একটি পূর্ব-নির্ধারিত ভ্রমণ বাতিল করেছেন। তার নিকটতম সহযোগীদের আশা ছিল, ক্ষমতা হস্তান্তরের আগে এ সাপ্তাহিক ছুটিতে ভ্রমণ করলে তিনি হয়তো ভালো মেজাজে থাকবেন। সাপ্তাহিক ছুটিতে তিনি ডেপুটি চিফ অব স্টাফ ড্যান স্কাভিনোর সঙ্গে কথা বলেছেন।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড