• মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সৌদি বাদশাহ ইরানের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়াচ্ছেন

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ নভেম্বর ২০২০, ১০:২০
সৌদি বাদশাহ ইরানের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়াচ্ছেন
সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ও বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ (ছবি : খালিজ টাইমস)

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বান জানানোর পর সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজের কঠোর সমালোচনা করেছে তেহরান।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, ভিত্তিহীন অভিযোগে তেহরানের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়ানো হয়েছে। এসব থেকে বিরত থাকতে সৌদি রাজতন্ত্রকে আহ্বান জানান তিনি। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

রবিবার (১৫ নভেম্বর) সৌদি সরকারের উপদেষ্টা পরিষদের উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আবারও অভিযোগ করেন ইরান পারমাণবিক ও ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। এর বিরুদ্ধে সিদ্ধান্তমূলক অবস্থান নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

সৌদি বাদশাহ বলেন, ইরানের আঞ্চলিক কর্মসূচি, অন্যদেশে তাদের হস্তক্ষেপ, সন্ত্রাসবাদে উৎসাহ দেওয়া, সাম্প্রদায়িক বিভাজনে বাতাস দেওয়ার বিপদের ওপর জোর দিচ্ছে সৌদি রাজতন্ত্র এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ইরানের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্তমূলক অবস্থান নিতে আহ্বান জানাচ্ছে যাতে করে ব্যাপক বিধ্বংসী অস্ত্র অর্জন এবং ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্নয়ন কর্মসূচি থেকে তাদের বিরত রাখা নিশ্চিত করা যায়।

আরও পড়ুন : ইউরোপ-মধ্যপ্রাচ্যে ১০ দিনের সফরে পম্পেও

সৌদি বাদশাহর ওই মন্তব্যের একদিন পর তেহরানে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইদ খাতিবজাদেহ বলেছেন, সৌদি শাসকের এমন মন্তব্য অস্বাভাবিক নয়। তবে আমার বিশ্বাস ইরানের বার্তা পরিষ্কার... সৌদি শাসকরা নিশ্চয় জানে, ইয়েমেনে মানুষ হত্যার মধ্য দিয়ে শান্তি অর্জন, ওয়াহিবিজম ও তাকফিরি গ্রুপের প্রোপাগান্ডা চালিয়ে আঞ্চলিক শাসন প্রতিষ্ঠা করা যাবে না।

তিনি বলেন, এমনকি লবির পেছনে অর্থ ব্যয় করে এবং মুসলিম বিশ্বের সম্পদ ব্যয় করে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে না।

ইরানি মুখপাত্রের মতে, সৌদি শাসকেরা যতক্ষণ পর্যন্ত ভুল পথ থেকে ফিরে না আসবে ততক্ষণ পর্যন্ত সৌদি আরবের বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকার পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই, এমনকি পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলেও নয়।

আরও পড়ুন : ইরাক-আফগানিস্তান থেকে আরও সেনা ফিরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

উল্লেখ্য, বিগত কয়েক বছর ধরেই মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে বেশ কয়েকটি ছায়া যুদ্ধে জড়িয়ে আছে ইরান ও সৌদি আরব। ইয়েমেনের তেহরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে গত পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে লড়াই চালাচ্ছে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট।

গত সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে দেওয়া ভাষণে ৮৪ বছর বয়সী সৌদি শাসক বলেন, ইরানের সম্প্রসারণবাদের বিরুদ্ধে বিশ্বের লড়াই করা প্রয়োজন।

সোমবার সৌদি বাদশাহর সাম্প্রতিক মন্তব্যের কড়া জবাব দেওয়ার পাশাপাশি আঞ্চলিক মুসলিম দেশগুলোর প্রতি ঐক্যের বার্তাও দেন ইরানের মুখপাত্র। সাইদ খাতিবজাদেহ বলেছিলেন, আমাদের বিশ্বাসের ভিত্তিতে ইসলামি প্রজাতন্ত্রের বন্ধুত্বের হাত এখনও সব ইসলামিক দেশের জন্য খোলা রয়েছে।

আরও পড়ুন : পদ ছাড়লেন আর্মেনিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী

তিনি দাবি করেন, সৌদির পরিকল্পনা ও প্রকল্পের সঙ্গে আমরা সবাই পরিচিত। প্রতিবেশী আমরা বাছাই করে নেয়নি, তারপরও আমরা প্রতিবেশী। তাদের কোনো উপায় নেই আর আমাদের সবারও অন্য কোনো উপায় নেই কিন্তু এই অঞ্চলের অগ্রগতির জন্য আমরা ঐক্যবদ্ধ হতে পারি।

বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্ব শক্তির স্বাক্ষরিত যুগান্তকারী পারমাণবিক চুক্তি থেকে ২০১৮ সালের মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেন দেশটির বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একই সঙ্গে এককভাবে তেহরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করেন। সৌদি আরব এবং আরও কয়েকটি আরব দেশ ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপে সমর্থন দিয়েছে।

আরও পড়ুন : সাইপ্রাসকে দুটি আলাদা রাষ্ট্র বানাতে চান এরদোগান

এরপর থেকে মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা ক্রমেই বাড়ছে। যুক্তরাষ্ট্রের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আগামী জানুয়ারিতে দায়িত্ব নেওয়ার পারমাণবিক চুক্তিতে ফিরে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তবে তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, অন্যান্য বিষয়ের সঙ্গে আঞ্চলিক কার্যক্রম ও ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে ইরানের ওপর চাপ প্রয়োগও করতে চাইবেন।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড