• মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পশ্চিম তীরে আরও বসতি বানাচ্ছে ইসরায়েল, ক্ষুব্ধ ফিলিস্তিন

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৫ অক্টোবর ২০২০, ১৩:৫১
পশ্চিম তীরে আরও বসতি বানাচ্ছে ইসরায়েল, ক্ষুব্ধ ফিলিস্তিন
পশ্চিম তীরে ইসরায়েলের অবৈধ বসতি (ছবি : রয়টার্স)

দীর্ঘ আট মাস পর আবার পশ্চিম তীরে বসতি স্থাপনে তোড়জোড় চালাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের ইহুদিবাদী রাষ্ট্র ইসরায়েল। দখলদার বাহিনীটির পরিকল্পনা কমিটি পশ্চিম তীরে নতুন বাড়ি তৈরির জন্য অনুমোদন দিয়েছে। অবৈধ এই বসতিতে এক হাজার ১৩১টি বাড়ি থাকবে। তাছাড়া আরও ৮৫৩টি বাড়ি তৈরির প্রক্রিয়াও চলছে। যদিও এগুলোর চূড়ান্ত অনুমোদন এখনো বাকি আছে।

জার্মান মিডিয়া ডয়চে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়, মাস খানেক আগে কথিত মুসলিম রাষ্ট্র আমিরাত ও বাহরাইনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক শুরু হয় ইসরায়েলের। তখন তারা জানিয়েছিল, নতুন করে পশ্চিম তীরের আর কোনো এলাকা নেওয়া হবে না। যদিও এখন তারা নিজেদের বসতি বিস্তার করছে।

এ দিকে পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি প্রশাসন আবারও বসতি স্থাপনে উদ্যোগী হওয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে ফিলিস্তিন। কেননা পুরো ওয়েস্ট ব্যাঙ্ক, গাজা ও পূর্ব জেরুজালেম নিয়ে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র তৈরির চেষ্টা চলছে। ইসরায়েলের নতুন বসতি তৈরির সিদ্ধান্ত শুধু যে সেই প্রয়াসকে বিঘ্নিত করছে তাই নয়, বৃহত্তর আরব-ইসরায়েল শান্তি চুক্তি সম্ভাবনাও কমে গেছে। এই চুক্তি তখনই সম্ভব, যখন ইসরায়েল এই অংশ ফিলিস্তিনকে দিয়ে দেবে।

আরও পড়ুন : ফিলিস্তিনিদের অকৃতজ্ঞ জাতি বলছে ইসরায়েলের বন্ধু আমিরাত

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র বলেছেন, আমরা সব দেশের কাছে আবেদন জানাচ্ছি, তারা যেন অবিলম্বে এই নতুন বসতি স্থাপনের পরিকল্পনা বন্ধ করে। কারণ এই উদ্যোগের ফলে প্রকৃত শান্তি চুক্তির প্রয়াস ধাক্কা খাবে।

কেন পশ্চিম তীরে বসতি স্থাপনে ইচ্ছুক ইহুদিরা

কিছু লোক এসব বসতিতে গেছেন অধিকতর সরকারি সুবিধা পাওয়ার আশায়। কারণ সেখানে ঘরবাড়ি বানানোর খরচ খুব কম।

আরও পড়ুন : এবার ইসরায়েলের সঙ্গে আলোচনার টেবিলে লেবানন

নানা সুবিধার কারণে সেখানকার জীবনমান উন্নত। আর কিছু মানুষ গেছেন কঠোর ধর্ম বিশ্বাসের কারণে। তারা মনে করেন ঈশ্বর এ জায়গা তাদের জন্য দিয়েছে।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড