• বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

উ. কোরিয়ার দানবীয় ক্ষেপণাস্ত্র দেখে দিশেহারা যুক্তরাষ্ট্র

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫৫
উ. কোরিয়ার দানবীয় ক্ষেপণাস্ত্র দেখে দিশেহারা যুক্তরাষ্ট্র
আক্রমণের জন্য প্রস্তুত দানবীয় ক্ষেপণাস্ত্র (ছবি : বিবিসি নিউজ)

সম্প্রতি নতুন এক ধরনের দানবীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন করেছে উত্তর কোরিয়া। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তরের এই আন্তঃ মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচনের ঘটনায় হতাশা প্রকাশ করেছেন।

হোয়াইট হাউস বলছে, উ. কোরিয়ার এভাবে ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শনের ঘটনা সত্যিই হতাশাজনক। যদিও বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এটি লিকুইড ফুয়েল মিসাইল হিসেবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্ষেপণাস্ত্র। এতে একাধিক ওয়ারহেড বহন করা যাবে বলে জানানো হয়েছে।

শনিবার (১০ অক্টোবর) রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে মিলিটারি প্যারেডে বিশালাকার ওই ক্ষেপণাস্ত্রটি প্রদর্শন করে উত্তর কোরিয়া।

এ দিকে ডেইলি সানের প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্প পিয়ংইয়ংয়ের রাজপথে নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র দেখার পর বলেছেন, তিনি উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের ব্যাপারে হতাশ হয়ে পড়েছেন।

আরও পড়ুন : আর্মেনীয় ট্যাঙ্ক ধ্বংসের রোমহর্ষক ভিডিয়ো প্রকাশ আজারবাইজানের

ট্রাম্প তার এই হতাশার কথা হোয়াইট হাউসের কয়েকজন কর্মকর্তার সামনে তুলে ধরেছেন বলে ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এই ক্ষেপণাস্ত্র অতীতে উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে প্রদর্শিত যে কোনো ক্ষেপণাস্ত্রের চেয়ে আকারে বড়। একটি বিশাল সামরিক ট্রাকে করে ক্ষেপণাস্ত্রটি প্রদর্শন করা হয়েছে।

মার্কিন বিশ্লেষকদের মতে, ওই অত্যাধুনিক ট্রাক বা মিসাইল লঞ্চার থেকেই আণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্রটি যে কোনো জায়গা থেকে উৎক্ষেপণ করা যাবে। শুধু তাই নয়, এতো বড় আন্তঃ মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র বিশ্বে আর কোনো দেশের নেই।

আরও পড়ুন : আর্মেনীয় গোলায় ৭ সেনা নিহতের কঠিন প্রতিশোধের ঘোষণা আজারবাইজানের

২০১৭ সালে উত্তর কোরিয়া ‘হাওয়াসং-১৫’ নামের যে ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছিল সর্বশেষ ক্ষেপণাস্ত্রটি তার চেয়েও অনেক বড়। হাওয়াসং-১৫ দিয়ে উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে আঘাত হানতে পারবে বলে সে সময় বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছিলেন।

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এ পর্যন্ত তিনবার সরাসরি সাক্ষাত করেছেন। উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র ধ্বংসের বিনিময়ে দেশটির ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করাই ছিল এসব সাক্ষাতের উদ্দেশ্য; কিন্তু তার কোনোটিই সফল হয়নি।

আরও পড়ুন : আর্মেনিয়াকে ধ্বংস না করে বাড়ি ফিরবে না তুরস্কের সেনারা

ট্রাম্প তার নির্বাচনি প্রচারণায় বলেছেন, আগামী ৩ নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি অল্প সময়ের মধ্যেই উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে চুক্তি করে ফেলবেন। অপর দিকে উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গকে দুই শীর্ষ নেতার আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার জন্য দায়ী করেছে।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড