• বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

'কাশ্মীরিরা নিজেদের ভারতীয় মনে করে না, চীনা শাসনই তাদের পছন্দ'

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:২০
ফারুক আবদুল্লাহ

ভারতীয়দের জাতীয়বাদীদের চক্ষুশূল জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ। তিনি দাবি করলেন, কাশ্মীরের মানুষ নিজেদের ভারতীয় বলে মনে করেন না এবং তারা চীনের দ্বারা শাসিত হওয়াই পছন্দ করবেন।

টিভি সঞ্চালক ও সাংবাদিক করণ থাপরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনই বিস্ফোরক দাবি করেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ। তিনি আরও বলেন, কাশ্মীরীরা হল ‘ক্রীতদাস’ এবং তাদের দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক মনে করা হয়। এর আগে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে প্রশ্ন করেছিলেন, সীমান্তে স্থিতাবস্থা ফেরানো নিয়ে চীনের সঙ্গে যদি আলোচনায় বসা যায়, তা হলে পাকিস্তানের সঙ্গেই বা যাবে না কেন।

কেন্দ্রের দ্বারা সংবিধানের ৩৭০ ধারা লোপ করার সিদ্ধান্তকে যে কাশ্মীরের মানুষরা মেনে নেননি, সেকথা স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেন, সেনা সরিয়ে নেওয়ার পরই সাধারণ মানুষ বিপুল সংখ্যায় জমায়েত করে সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছিল। তিনি অভিযোগ করেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জনগণকে বিভ্রান্ত করছেন এবং তাদের সঙ্গে প্রতারণা করছেন।

তিনি জানিয়েছেন, গত আগস্টে ওই সিদ্ধান্তের আগে যখন জম্মু ও কাশ্মীরে সেনা বাড়ানো হচ্ছে তখন তিনি সে বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন করেছিলেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী তখন তাকে বলেছিলেন, সুরক্ষার উদ্দেশ্যেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন- কৃষকদের মোদী বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল ভারত

এর আগেও কাশ্মীরের মানুষদের দুরবস্থা নিয়ে অভিযোগ করেছেন তিনি। গোটা দেশে ৪জি পরিষেবা মিললেও এখানে তা মেলে না। এবিষয়ে তার বক্তব্য, ‘‘বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে কী করে এখানকার মানুষ বাকিদের মতো এগিয়ে যেতে পারবে যেখানে গোটা দেশের কাছে ৪জি ইন্টারনেট রয়েছে?’’

প্রসঙ্গত, ৫ আগস্ট ৩৭০ ধারা বিলুপ্তির ঘোষণার পরই জম্মু ও কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতাদের আটক করা হয়। তাঁদের মধ্যে ছিলেন ন্যাশনাল কনফারেন্সের বর্ষীয়ান নেতা ফারুকও। অবশেষে গত মার্চ মাসে তিনি মুক্তি পান।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড