• বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

লেবাননে হিজবুল্লাহর অস্ত্র গুদামে বিস্ফোরণ, বহু হতাহতের আশঙ্কা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:২৬
লেবাননে হিজবুল্লাহর অস্ত্র গুদামে বিস্ফোরণ, বহু হতাহতের আশঙ্কা
বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত লেবানন (ছবি : আল-জাজিরা)

আগুন-বিস্ফোরণের বিপদ যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না মধ্যপ্রাচ্যের দেশ লেবাননের। গত আগস্টে প্রথমে বৈরুত বন্দর ধ্বংস, এর এক মাসের মাথায় মাত্র সাতদিনের ব্যবধানে তিনটি বড় অগ্নিকাণ্ড, তার এক সপ্তাহ পরে এবার ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটেছে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় গ্রাম এইন কানায়।

হিজবুল্লাহর ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এলাকাটি লেবানিজ রাজধানী বৈরুত থেকে ৫০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত।

তাৎক্ষণিকভাবে হিজবুল্লাহর অস্ত্র গুদামে বিস্ফোরণের কারণ জানা যায়নি। তবে এতে বহু মানুষ হতাহত হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শিয়া মুসলিমদের অন্যতম রাজনৈতিক শক্তি হিজবুল্লাহর একটি সূত্র জানিয়েছে, বিস্ফোরণের পর সেখানকার আকাশ ধোঁয়ায় ছেয়ে রয়েছে। সতর্কতার জন্য এলাকাজুড়ে বিশেষ নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : কাশ্মীর ইস্যুতে ফের ভারতের রোষানলে পাকিস্তান!

গত ৪ আগস্ট বৈরুত বন্দরের একটি গুদামে প্রথমে আগুন, এরপর ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। গুদামটিতে ২ হাজার ৭৫০ টন বিপজ্জনক রাসায়নিক অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট প্রায় ছয় বছর ধরে মজুত ছিল বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন : সিরিয়া থেকে তেল চুরি করছে মার্কিন সেনারা!

শক্তিশালী ওই বিস্ফোরণে ধ্বংস হয়ে যায় গোটা শহরের অর্ধেক। এতে প্রাণ হারান প্রায় ২০০ মানুষ, আহত হন অন্তত সাড়ে ছয় হাজার। বিস্ফোরণে মোট ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কয়েক বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে গেছে।

আরও পড়ুন : চীনে আক্রমণের হুঁশিয়ারি দিয়ে সীমান্তে উড়ছে ভারতের রাফালে যুদ্ধবিমান

বন্দরে বিস্ফোরণের সুনির্দিষ্ট কারণ জানতে এখনো তদন্ত চলছে। তবে এ ঘটনার মাত্র ছয়দিনের মাথায় দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয় লেবানিজ সরকার।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801703790747, +8801721978664, 02-9110584 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড