• শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সীমান্তে যে কোনো কিছুর জন্য প্রস্তুত চীনের সেনারা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:০২
সীমান্তে যে কোনো কিছুর জন্য প্রস্তুত চীনের সেনারা
সীমান্তে মোতায়েন চীনের সেনা সদস্যরা (ছবি : সিনহুয়া)

ভারতের সঙ্গে উত্তেজনা নিরসনে যুদ্ধ কিংবা শান্তি উভয় রাস্তা খোলা রেখেছে এশিয়ার পরাশক্তি চীনের সেনাবাহিনী। এমনটাই জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস। ভারতের পার্লামেন্টে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের রাখা বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় প্রকাশিত এক নিবন্ধে এ কথা জানানো হয়।

সংবাদমাধ্যমটির প্রধান সম্পাদকের লেখা ওই নিবন্ধে বলা হয়েছে, চীনা সেনাবাহিনীর কঠোর অবস্থান নেওয়ার কারণেই পার্লামেন্টের ভাষণে আলোচনার কথা বলেছেন ভারতীয় মন্ত্রী।

লাদাখ সীমান্তে কয়েক মাস ধরে চলা উত্তেজনা নিয়ে মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় পার্লামেন্টে বক্তব্য রাখেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। ওই ভাষণে তিনি সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাহসী ভূমিকার প্রশংসা করেন। তবে সীমান্ত সংকট নিরসনে শান্তিপূর্ণ সমাধানের ওপরেই জোর দেন।

আরও পড়ুন : ফের বন্ধ হলো আল-আকসা মসজিদ

গ্লোবাল টাইমসের নিবন্ধে বলা হয়, রাজনাথের বক্তব্যের মতোই সম্প্রতি সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনীর গতিবিধি ঢিলেঢালা হয়ে পড়েছে। চীনা সেনাবাহিনীর কঠোর অবস্থানের কারণেই তা সম্ভব হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে ওই নিবন্ধে।

আরও পড়ুন : মার্কিন বিমানকে বিধ্বস্ত করল ভেনেজুয়েলা

চীনা নিবন্ধে বলা হয়, ভারতে দুই ধরনের শক্তি রয়েছে। এর একটি উগ্র জাতীয়তাবাদী শক্তি। যারা শান্তিপূর্ণ সহজ সমাধানের পথে হাঁটতে নারাজ এবং যুদ্ধের মতো কঠিন পথে সমাধান খুঁজতে চায়। আরেকটি শক্তি শান্তিপূর্ণ সমাধান চায়।

আরও পড়ুন : গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলার রোমহর্ষক ভিডিও প্রকাশ

ওই নিবন্ধে বলা হয়, ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক আলোচনায় যুক্ত থাকলেও চীন দিল্লির উগ্র জাতীয়তাবাদী শক্তিটি যে ভাষা বোঝে সেই ভাষায় জবাব দেওয়ার জন্যও প্রস্তুত রয়েছে।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড