• শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বেলারুশের আরও এক নেতাকে তুলে নিয়ে গেল মুখোশধারীরা 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:২১
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

বেলারুশে সরকারবিরোধী আন্দোলনে যুক্ত আরও এক বিরোধী নেতাকে তুলে নিয়ে গেছে মুখোশধারীরা। বুধবার ম্যাক্সিম জ্ন্যাক নামের ওই নেতাকে নিজ কার্যালয় থেকে ধরে নিয়ে গেছে সাদা পোশাক পরা কয়েকজন মুখোশধারী।

এ ঘটনার মাত্র দু’দিন আগেই বেলারুশের রাজধানী মিনস্কের কেন্দ্র থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে মারিয়া কোলেসনিকোভাসহ বিরোধী দল দ্য কোঅর্ডিনেশন কাউন্সিলের তিন শীর্ষ নেতাকে। নোবেলজয়ী লেখক সভেৎলানা আলেক্সিভিচ বাদে জ্ন্যাকই ছিলেন বেলারুশের ভেতর সক্রিয় কাউন্সিলের শেষ সদস্য। বাকিদের হয় আটক নাহয় দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার সীমান্ত এলাকায় যাওয়ার পর পাসপোর্ট ছিড়ে ফেলে জোরপূর্বক ইউক্রেন পাঠিয়ে দেয়া আটকে দিয়েছেন বিরোধী নেতা মারিয়া। বর্তমানে তিনি আটক থাকলেও তার অবস্থান এখনও অজ্ঞাত।

কোঅর্ডিনেশন কাউন্সিলের নেতৃত্বে থাকা বেলারুশের প্রধান বিরোধী নেতা সভেৎলানা তিখানোভস্কায়াও সরকারি চাপের মুখে লিথুনিয়ায় পাড়ি জমাতে বাধ্য হয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। ম্যাক্সিম জ্ন্যাকের বিষয়ে তিনি বলেছেন, আমি জ্ন্যাকের তাৎক্ষণিক মুক্তি দাবি করছি, যাকে আটক করা হয়েছে। আরও নিখুঁতভাবে বললে, তাকে অপহরণ করা হয়েছে। তথাকথিত কর্তৃপক্ষ যে পদ্ধতি প্রয়োগ করছে তা ভয়াবহ।

স্বৈরশাসক আলেক্সন্ডার লুকাশেঙ্কো প্রসঙ্গে এ বিরোধী নেতা বলেন, লুকাশেঙ্কো সমঝোতায় ভয় পাচ্ছেন এবং কাউন্সিলকে পঙ্গু করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু সমঝোতার কোনও বিকল্প নেই এবং লুকাশেঙ্কোকে সেটা মানতেই হবে।

জ্ন্যাকের আইনজীবীর বরাতে কোঅর্ডিনেশন কাউন্সিল জানিয়েছে, সরকারি তদন্ত কমিটি এ বিরোধী নেতার নামে জাতীয় নিরাপত্তার হুমকি সৃষ্টির অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছে।

এছাড়া, কারাগারে থাকা আরেক বিরোধী নেতা ভিক্টর বাবারিকোর প্রধান কার্যালয়ে তল্লাশি চালিয়েছেন সরকারি কর্মকর্তারা।

এদিকে, বেলারুশে বিরোধী নেতাদের অপহরণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। অন্যায়ভাবে আটক সবাইকে দ্রুত মুক্তি দিতে বেলারুশ কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

গত ৯ আগস্টের নির্বাচনে স্বৈরশাসক আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোকে বিপুল ভোটে জয়ী ঘোষণার পর থেকেই উত্তপ্ত বেলারুশের পরিস্থিতি। গত ২৬ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা লুকাশেঙ্কোর পদত্যাগের দাবিতে টানা চতুর্থ সপ্তাহে রাস্তায় বিক্ষোভ করছেন হাজার হাজার মানুষ। তবে এগুলো পশ্চিমা ষড়যন্ত্রের অংশ উল্লেখ করে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন রাশিয়া সমর্থিত বেলারুশিয়ান প্রেসিডেন্ট। সূত্র: রয়টার্স

ওডি/

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড