• বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নির্বাচনের দাবিতে হংকংয়ে বিক্ষোভ, গ্রেপ্তার ৩০০ 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:২২
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

নির্বাচনের দাবিতে চীনের বিশেষ আইন লঙ্ঘন করে রবিবার হংকংয়ের বিপুলসংখ্যক মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছে। এদিন প্রায় ৩০০ বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ডয়চে ভেলে অনলাইন জানায়, নির্বাচন বাতিল করার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামেন হংকংবাসী। সেখান থেকে এ গ্রেপ্তারের ঘটনা ঘটে।

হংকংয়ের পুলিশ বিভাগ নিজেরাই টুইট করে গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানিয়েছে। তবে সেখানে বলা হয়েছে, গ্রেপ্তার নয়, প্রতিবাদীদের আটক করা হয়েছে।

এ মাসেই হংকংয়ের আইনসভা নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। এই আইনসভাতে ৫০ শতাংশ প্রতিনিধি জনগণের ভোটের দ্বারা নির্বাচিত হন। বাকি ৫০ শতাংশ হন মনোনীত। মনোনীত প্রার্থীরা অধিকাংশই চীনের কমিউনিস্ট শাসকদের অনুগত।

তবে গণতন্ত্রপন্থীদের ধারণা ছিল, ভোট হলে বাকি ৫০ শতাংশ আসনের অধিকাংশই তাদের দখলে আসত। ভোট হলে গণতন্ত্রপন্থীদের দিকে ক্ষমতা চলে যাবে, এমন আশঙ্কা চীন ঘেঁষা বর্তমান শাসকদেরও।

বিশেষজ্ঞদের একাংশের বক্তব্য, সে কারণেই ভোট আগামী বছর পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়। যদিও করোনার জন্যই এমন সিদ্ধান্ত, জানানো হয়েছে।

গণতন্ত্রপন্থীদের বক্তব্য, জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত হংকংয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ হাজার ৬০০। অন্য দেশের তুলনায় যা কোনও সংখ্যাই নয়। এই পরিস্থিতিতে করোনার জন্য ভোট পিছিয়ে দেওয়া কোনও যুক্তি হতে পারে না। সে কারণেই রবিবার বিপুলসংখ্যক মানুষ বিক্ষোভে নামে।

এদিকে কিছুদিন আগেই হংকংয়ে চীন বিশেষ আইন চালু করেছে। যে আইনের বলে চীন শাসিত অঞ্চলটিতে সব ধরনের বিক্ষোভ-আন্দোলন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একের পর এক প্রতিবাদীকে গ্রেপ্তার করছে পুলিশ।

রবিবারেও আন্দোলনকারীদের গ্রেপ্তার করা হয়। যার মধ্যে বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ গণতন্ত্রপন্থী নেতাও রয়েছেন বলে জানা গেছে। বিক্ষোভ দমনে কোনও কোনও জায়গায় গোলমরিচের বল ছোড়া হয়।

২০১৯ সাল থেকে চীনের বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলন করছে হংকং। তাদের বক্তব্য, ১৯৮৪ সালের চুক্তি লঙ্ঘন করছে চীন।

যুক্তরাজ্যের থেকে স্বাধীনতা পাওয়ার পরে হংকংয়ের দায়িত্ব নেয় চীন। কিন্তু হংকংকে বিশেষ অধিকার দেওয়া হয়। বাণিজ্য এবং গণতন্ত্রের বিষয়ে চীনের চেয়ে অনেকটাই আলাদা হংকং। পশ্চিমের সঙ্গে তাদের মুক্ত বাণিজ্যচুক্তি ছিল। কিন্তু ২০১৯ সাল থেকে গণতন্ত্রে আঘাত হানছে চীন, এই অভিযোগে আন্দোলন শুরু করে হংকং।

বিক্ষোভ দমনে একের পর এক পদক্ষেপ ও আইন গ্রহণ করা হলেও কোনোভাবেই গণতন্ত্রকামীদের থামানো যায়নি। করোনাকালের মধ্যেও বিক্ষোভ চালিয়ে যান তারা।

ওডি/

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড