• সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৬ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিস্ফোরণের ৩০ ঘণ্টা পর বন্দরকর্মীকে জীবিত উদ্ধার

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৭ আগস্ট ২০২০, ১৩:৪৭
বিস্ফোরণের ৩০ ঘণ্টা পর বন্দরকর্মীকে জীবিত উদ্ধার
জীবিত অবস্থাতে উদ্ধারকৃত বন্দরকর্মী (ছবি : ইরনা)

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত অন্তত ১৫৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন পাঁচ হাজারের অধিক মানুষ। তাছাড়া এখনো নিখোঁজ রয়েছে আরও অনেকে।

তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি জানায়, ধ্বংসস্তূপের মধ্যে নিখোঁজ ব্যক্তিদের সন্ধানে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা। এরই মধ্যে বিস্ফোরণের ৩০ ঘণ্টা পর ধ্বংসস্তূপ থেকে জীবিত নিখোঁজ এক বন্দরকর্মীকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের সময় তার পুরো শরীর রক্তমাখা ছিল।

আমিন আল জাহিদ নামে বৈরুত বন্দরের ওই কর্মীর ছবি তার স্বজনদের উদ্দেশ্য করে ইনস্টাগ্রামের একটি পেজে শেয়ার দেওয়ার পর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়। ভয়াবহ ওই বিস্ফোরণে নিখোঁজ হন আল জাহিদ। উদ্ধারকর্মীরা ভূমধ্যসাগর থেকে ৩০ ঘণ্টা পর তাকে খুঁজে পান।

সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এ সংক্রান্ত এক ছবিতে দেখা যায়, জাহাজের ডেকে উদ্ধারকর্মীরা এক ব্যক্তিকে ঘিরে রেখেছেন, যার শরীর রক্তমাখা। তবে তিনি জীবিত।

আরও পড়ুন : যে কারণে ভয়াবহ বিস্ফোরণের শিকার লেবানন (ভিডিও)

দুবাইভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-আরাবিয়ার এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, উদ্ধার করার পর ওই ব্যক্তিকে লেবাননের রাফিক ইউনির্ভাসিটি হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তবে আল-জাহিদের পরিবারের সদস্যরা লেবাননের একটি টেলিভিশনকে বলেছেন, হাসপাতালে গেলেও তারা তাকে (আমিন আল-জাহিদ) খুঁজে পাননি। বর্তমান তার অবস্থা কী তা জানতে না পারায় উদ্বিগ্ন রয়েছেন।

আরও পড়ুন : চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস, কানাডাতেও ঘাতক বাহিনী পাঠিয়েছেন সালমান

গত মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) বিস্ফোরণের পর নিখোঁজ ব্যক্তিদের সন্ধানে ইনস্টাগ্রামে একটি পেজ চালু করা হয়। যার মাধ্যমে নিখোঁজ হওয়া আমিন আল জাহিদের পরিচয় মিলেছে। তবে তিনি কীভাবে এ বিস্ফোরণ থেকে বাঁচতে পেরেছিলেন, তা এখনো জানা যায়নি।

সূত্র : ডেইলি মেইল

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড