• মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৭ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

লেবাননের বিস্ফোরণ পারমাণবিক বোমার মতোই শক্তিশালী 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৬ আগস্ট ২০২০, ১৫:০১
লেবাননের বিস্ফোরণ পারমাণবিক বোমার মতোই শক্তিশালী 
বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ (ছবি : রয়টার্স)

লেবাননের রাজধানী বৈরুত যেন মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে। চারদিকে শুধু লাশ আর লাশ। রক্তাক্ত হয়ে ছুটছে মানুষ। হাসপাতালেও ঠাঁই পাচ্ছেন না আহতরা।

বিলাসবহুল হোটেল, আবাসিক ভবন সবকিছু এখন ধ্বংসস্তূপ। আহতদের চিৎকার আর নিখোঁজের স্বজনদের দীর্ঘশ্বাসে ভারি হয়ে উঠছে আকাশ। মঙ্গলবার বিকালে রাজধানী বৈরুতের বন্দর এলাকায় জোড়া বিস্ফোরণ ঘটে। এই ধ্বংসলীলার মধ্যে ৩ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে লেবাননের সরকার।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি নিউজ জানিয়েছে, বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে অন্তত ১৩৫ জনে দাঁড়িয়েছে। তাছাড়া এখন পর্যন্ত প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ফলে শহরটিতে দুই সপ্তাহের জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, বিস্ফোরণে বৈরুত শহর ভূমিকম্পের মতো কেঁপে উঠেছিল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ভিডিওতে দেখা যায়, বৈরুতের বন্দর এলাকা থেকে বড় গম্বুজ আকারে ধোঁয়া উড়ছে, এর কিছুক্ষণের মধ্যে বিকট বিস্ফোরণে গাড়ি ও স্থাপনা উড়ে যেতে দেখা যায়।

বাসিন্দারা জানান, বিস্ফোরণে পুরো শহর কেঁপে উঠে। এতে শহরের অনেক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিস্ফোরণস্থল থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে পর্যন্ত ভবনের জানালা, দরজা উড়ে গেছে। কম্পন অনুভূত হয় ২৪০ কিলোমিটার দূরের দ্বীপরাষ্ট্র সাইপ্রাসেও, সেখানকার বাসিন্দারা এ ঘটনাকে ভূমিকম্প বলে মনে করেছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এটিএফ বিস্ফোরক তদন্তকারী কর্মকর্তা অ্যান্থনি মে বিস্ফোরণের মাত্রা এবং শহর জুড়ে প্রবল কম্পনের ব্যাপারে বলেন, এটা কিছুটা এক কিলোটন ওজনের পারমাণবিক বোমা বিস্ফোরণের মতো ছিল। তিনি বলেন, এই বিস্ফোরণে পারমাণবিক কোনো পদার্থ ছিল না। কিন্তু সেখানে যে কম্পন তৈরি হয়েছে, বিস্ফোরণ ঘটেছে, সেগুলো একটি ছোট আকারের পারমাণবিক বোমার সমতুল্য।

লেবাননের সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, বন্দরের কাছের একটি আতশবাজির কারখানায় প্রথমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আতশবাজির কারখানার আগুন আশপাশের ভবনে ছড়িয়ে পড়ায় অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুতের গুদামে মুহূর্তের মধ্যে বিস্ফোরণ ঘটে। কিন্তু দেশটির রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ বন্দরের কাছে কীভাবে এই বিপজ্জনক দ্রব্য মজুত করা হলো, ছয় বছর আগে জব্দ করা হলেও সেগুলো কেন ধ্বংস করা হয়নি, পর্যাপ্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা ছাড়াই কেন সেগুলো সেখানে এতদিন থাকল, এমন নানা প্রশ্ন উঠেছে।

আরও পড়ুন : সোলাইমানি হত্যায় ফের প্রতিশোধের হুঁশিয়ারি ইরানের

লেবাননের কর্মকর্তারা বলছেন, বিস্ফোরণস্থলের ধ্বংসস্তূপ সরাতে এখনো কাজ কারছেন উদ্ধারকর্মীরা। ফলে হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। দেশটিতে দুই সপ্তাহের জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হতে পারে বলে আভাস দিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো। লেবানন

রেড ক্রসের প্রধান জর্জ কেটানি বলেন, আমরা একটি মারাত্মক বিপর্যয়ের প্রত্যক্ষদর্শী হলাম। বৈরুতের সবখানেই এখন আহত আর ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ।

আরও পড়ুন : যে কারণে ভয়াবহ বিস্ফোরণের শিকার লেবানন (ভিডিও)

পরিস্থিতি সামলাতে সরকার জরুরি ভিত্তিতে ৬ কোটি ৬০ লাখ ডলার ছাড় করতে যাচ্ছে বলে ঘোষণা দিয়েছেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট। করোনা ভাইরাসের কারণে অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে থাকা লেবাননের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে সহায়তাও চাওয়া হয়েছে।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড