• বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

এশিয়ায় চীনা আগ্রাসন বন্ধ করবে যুক্তরাষ্ট্র

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০২ আগস্ট ২০২০, ১০:৫০
এশিয়ায় চীনা আগ্রাসন বন্ধ করবে যুক্তরাষ্ট্র
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং (ছবি : সিএনএন)

ক্ষমতা বিস্তার ও গোটা বিশ্বকে নিজেদের নাগালের মধ্যে আনাই এশিয়ার পরাশক্তি চীনের একমাত্র লক্ষ্য। তাই সকলের ধৈর্যের পরীক্ষা নিচ্ছে তারা। তাদের এই আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সকলকে রুখে দাঁড়াতে হবে। মার্কিন সিনেটে দাঁড়িয়ে এ ভাবেই চীনের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠলেন সে দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও।

তার মতে, চীনা আগ্রাসনের সামনে প্রতিবেশীদের একেবারেই মাথা নোয়ানো চলবে না।

গত মে মাসের শুরুর দিক থেকে লাদাখ নিয়ে ভারত ও চীনের মধ্যে সংঘাত চলে আসছে। তা পুরোপুরি কাটিয়ে ওঠার আগেই ভুটানের উপর নজর পড়েছে চীনের। ভুটানের সাকতেং অভয়ারণ্যকে নিজেদের এলাকা বলে দাবি করেছে চীন। ওই এলাকায় যাবতীয় বিনিয়োগেও আপত্তি তুলেছে তারা। তাতেই নতুন করে বেইজিংয়ের তীব্র সমালোচনা করেছেন মাইক পম্পেও।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) মার্কিন কংগ্রেসে পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির শুনানি চলাকালীন মাইক পম্পেও বলেন, আসলে ক্ষমতা বিস্তার এবং গোটা বিশ্বকে নিজেদের নাগালের মধ্যে আনাই চীনের লক্ষ্য। ১৯৮৯ সাল থেকে গত কয়েক দশক ধরেই নিজেদের উদ্দেশ্য নিয়ে ইঙ্গিত দিয়ে আসছে চীন। বিশেষ করে শি জিনপিং ক্ষমতায় আসার পর থেকে এমনটাই চলে আসছে।

আরও পড়ুন : অযোধ্যায় মুসলিমদের দমনে কঠোর পুলিশি পাহারা

পম্পেও আরও বলেন, নিজেদের মতো করে গোটা বিশ্বে সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কথা বলে চীন। এখন আবার ভুটানের এলাকাকেও নিজেরে এলাকা বলে দাবি করছে। ভারতেও অনুপ্রবেশ ঘটিয়েছে। এতেই বোঝা যায় যে আসলে, সকলের ধৈর্যের পরীক্ষা নিচ্ছে চীন। তারা দেখছে কেউ তাদের বিরুদ্ধে মাথা তুলে দাঁড়ায় কি না, হেনস্থার প্রতিবাদ জানায় কি না।

আরও পড়ুন : জাপানে জরুরি অবস্থা জারি, নেপথ্যে মার্কিন ঘাঁটি

তবে চীন যতই আগ্রাসী হয়ে উঠুক না কেন, তাদের বিরুদ্ধে মাথা তুলে দাঁড়াতেই হবে বলে মন্তব্য করেন পম্পেও। তার মতে, এক বছর আগেও যতটা না নিশ্চিত ছিলাম, এ ব্যাপারে এখন তার চেয়ে ঢের বেশি আত্মবিশ্বাসী আমি। জানি ওদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে প্রস্তুত গোটা বিশ্ব। তবে এখনো অনেক কাজ বাকি। বিষয়টিকে আরও গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে আমাদের।

আরও পড়ুন : ইরানের বৃষ্টির মতো ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ভিডিও ভাইরাল

দেশের নাগরিকদের নিরাপত্তা রক্ষার্থে ১০৬টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে ভারত। যদিও এর মাধ্যমে বেইজিংকে উচিত শিক্ষা দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী।

আরও পড়ুন : ড্রোন ফোর্সে নতুন পরাশক্তি তুরস্ক

যদিও চীনা কমিউনিস্ট পার্টির হুমকির মুখে যে ভাবে একের পর এক দেশ রুখে দাঁড়াচ্ছে, তা মার্কিন কূটনীতিবিদদের দৌত্যের ফলেই সম্ভব হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড