• বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ঐতিহাসিক সংকটের মুখে মার্কিন অর্থনীতি, উদ্বিগ্ন ট্রাম্প

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০১ আগস্ট ২০২০, ১৪:১৮
ঐতিহাসিক সংকটের মুখে মার্কিন অর্থনীতি, উদ্বিগ্ন ট্রাম্প
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (ছবি : সিএনএন)

বছরের এপ্রিল থেকে জুন এই ত্রৈ-মাসিক পর্বে যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক অর্থনীতি সংকুচিত হয়েছে ৩২.৯ শতাংশ। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) মার্কিন সরকারের এক পরিসংখ্যানকে উদ্ধৃত করে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান বিষয়টি জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এটাই সবেচেয়ে বড় সংকোচন। প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রভাবেই এই ঐতিহাসিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এরই মধ্যে এক কোটি ৭০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। জনস্বাস্থ্যের পাশাপাশি ভাইরাসটির প্রভাব পড়ছে অর্থনীতির উপরও। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) পূর্বাভাস অনুযায়ী, চলতি বছর বিশ্ব অর্থনীতির মোট জিডিপি কমবে প্রায় ৪.৯ ভাগ।

বৃহস্পতিবার ইউরোপের বড় অর্থনীতির দেশ জার্মানি জানিয়েছে এপ্রিল থেকে জুন এ তিন মাসে দেশটির অর্থনীতির আকার কমেছে ১০.১ শতাংশ। ১৯৭০ সালের পর দেশটির জিডিপি কখনও এতোখানি কমেনি।

এবার যুক্তরাষ্ট্রও জানিয়েছে, তাদের অর্থনীতির উপর করোনার থাবা বসানোর আলামত দেখা দিতে শুরু করেছে। আগের বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসের তুলনায় এ বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসের প্রবৃদ্ধি রেকর্ড হারে কমেছে।

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে মার্চ মাসজুড়ে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির একটা বড় অংশে শাটডাউন চলছিল। আর তারই প্রভাব পড়তে দেখা গেছে এপ্রিল, মে, জুন মাসে। ১৯৪৫ সাল থেকে রেকর্ড রাখা শুরু হওয়ার পর এটাই কোনও অর্থনৈতিক পর্বের সবথেকে বড় জিডিপি সংকোচন।

আরও পড়ুন : ড্রোন ফোর্সে নতুন পরাশক্তি তুরস্ক

এর আগে ২০০৮ সালের মন্দার সময় এপ্রিল থেকে জুন মাসে যুক্তরাষ্ট্রের জিডিপির হার ৮.৪ শতাংশ সংকুচিত হয়েছিল। তার আগের রেকর্ডটি ছিল ১৯৫৮ সালের। তখন অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার ১০ শতাংশ কমে গিয়েছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জ্যাসন রিড বলেন, এটি এমন এক ঘটনা যা আমরা আগে কখনও দেখিনি। প্রথমে আমরা মনে হয়েছিলো এটি এক প্রাকৃতিক বিপর্যয় যা একই সময়ে গোটা দেশকে আঘাত করেছে। কিন্তু এখন তারচেয়েও খারাপ কিছু হতে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন : ইরানের বৃষ্টির মতো ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ভিডিও ভাইরাল

যুক্তরাষ্ট্রে এরই মধ্যে দুই কোটিরও অধিক লোক চাকরি হারিয়েছেন। চাকরি হারানোর এই রেকর্ড ছিল ১৯৩০ সালের পর সর্বোচ্চ। বেকার মানুষদের সরকারি সুবিধা পাওয়ার জন্য অনেক আবেদন জমা পড়ছে। শুরুর দিকে চাকরি হারানো মানুষদেরকে সপ্তাহে ৬০০ ডলার সুবিধা ভাতা দিচ্ছিলো যুক্তরাষ্ট্র। তবে শুক্রবার এ প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়েছে। বিকল্প কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়নি।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড