• শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

লেবানন সীমান্তে হিজবুল্লাহ-ইসরায়েলি সেনাদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৮ জুলাই ২০২০, ১১:৫৯
লেবানন সীমান্তে হিজবুল্লাহ-ইসরায়েলি সেনাদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ
সীমান্তে মোতায়েন ইসরায়েলি সেনা সদস্যরা (ছবি : আল-জাজিরা)

লেবানন সীমান্ত দিয়ে হিজবুল্লাহর সদস্যরা ইসরায়েলের দিকে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে। এবার এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সীমান্তে ভয়াবহ রকমের গোলাবর্ষণ শুরু করেছে ইসরায়েলি সেনারা। যদিও হিজবুল্লাহ নেতারা এরই মধ্যে অভিযোগটি প্রত্যাখ্যান করেছে।

এ দিকে ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে হিজবুল্লাহ সদস্যদের সঙ্গে ইসরায়েলি সেনাদের তুমুল সংঘর্ষের কথা ঘোষণা করেছে নেতানিয়াহুর সরকার। যদিও হিজবুল্লাহর দাবি, এটি ইসরায়েলের একটি চক্রান্ত। পুরো বিষয়টিই তাদের তৈরি করা।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত সোমবার (২৭ জুলাই)। লেবানন-ইসরায়েল সীমান্তে সেবা ফার্ম অঞ্চল দীর্ঘ দিন ধরেই বিতর্কের কেন্দ্রে। ১৯৮১ সালে ইসরায়েল এই অঞ্চল দখল করেছিল বলে লেবাননের কোনো কোনো সংগঠনের দাবি। সোমবার রাত থেকে সেখানেই লড়াই শুরু হয়।

ইসরায়েল ডিফেন্স ফোর্সের (আইডিএফ) দাবি ওই অঞ্চল দিয়ে লেবানন সীমান্ত পার করে ইসরায়েলে ঢোকার চেষ্টা করছিল বেশকিছু শিয়া সম্প্রদায়ভুক্ত হিজবুল্লাহ সদস্য। ওই অঞ্চলে সেনার কাঠামো লক্ষ্য করে আক্রমণ চালানো হচ্ছিল বলেও অভিযোগ। তা দেখেই আইডিএফ গুলি চালায়। তখন হিজবুল্লাহও পাল্টা গুলি চালায়। গুলির লড়াই এখনো চলছে বলে আইডিএফের তরফ থেকে জানানো হয়।

যদিও ঘটনার বিস্তৃত রিপোর্ট এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সবিস্তারে জানানো হবে বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

ইসরায়েল প্রশাসন ওই অঞ্চলের নাগরিককে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিয়েছে। নোটিসে বলা হয়, খুব বেশি প্রয়োজন না হলে কেউ যেন রাস্তায় না নামেন।

হিজবুল্লাহ অবশ্য ইসরায়েল দাবি সম্পূর্ণ নস্যাৎ করে দিয়েছে। তাদের বক্তব্য, আইডিএফের সঙ্গে তাদের কোনো সংঘর্ষই হয়নি। তাদের কোনো কর্মী সীমান্ত পার করার চেষ্টাও চালায়নি। তবে সময় মতো ইসরায়েলকে যে 'উচিত শিক্ষা' দেওয়া হবে, সে বিষয়ে ফের একবার হুমকি দিয়েছে হিজবুল্লাহ। কিছুদিন আগেই ইসরায়েলের সেনার হাতে সিরিয়ায় এক হিজবুল্লাহ জঙ্গির মৃত্যু হয়েছিল। তারপর থেকেই ইসরায়েলের বিরুদ্ধে বদলার হুমকি দিয়ে রেখেছে হিজবুল্লাহ।

সংগঠনটির বক্তব্য, ওই হুমকি পাওয়ার পর থেকেই ইসরায়েল সীমান্তে হাই অ্যালার্ট জারি করে রেখেছে। সোমবারের ঘটনা তারই জের। হিজবুল্লাহর দাবি অতি দ্রুতই ইসরায়েল তাদের যোদ্ধাকে মারার জবাব পাবে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু জানিয়েছেন, গোটা ঘটনার দিকে তিনি নজর রেখেছেন। তার বক্তব্য, লেবাননের দিক থেকে হিজবুল্লাহ যদি কোনো রকম আক্রমণ চালায় তা হলে তার দায় হিজবুল্লাহ এবং লেবাননকে নিতে হবে। আইডিএফ সব রকম পরিস্থিতির জন্য তৈরি হয়ে আছে। প্রয়োজনে তারাও জবাব দেবে।

একই সঙ্গে নেতানিয়াহুর বক্তব্য, সিরিয়ার সীমান্ত দিয়ে ইরান যদি আমাদের ভূখণ্ডে জঙ্গি পাঠানোর চেষ্টা করে, তার ফলও ভালো হবে না। আইডিএফ সব রকম জবাব দেবে।

আরও পড়ুন : ইসরায়েলি ভূখণ্ডে হিজবুল্লাহ হামলার ভয়াবহ ভিডিও প্রকাশ

লেবাননে জাতিসংঘের শান্তি বাহিনী রয়েছে। এই ঘটনার পরে তারা দুই পক্ষকেই শান্তি প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছে। তবে ইন্টারনেটে এই ঘটনা নিয়ে সাধারণ মানুষের প্রতিক্রিয়া অন্যরকম। অনেকেরই বক্তব্য, পুরো ঘটনাটিই তৈরি করা। দুই পক্ষই এই ঘটনাটিকে সামনে রেখে নিজেদের দেশের নাগরিকদের ক্ষমতা দেখাতে চাইছে।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড