• শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

করোনা নিয়ন্ত্রণে সফল ভিয়েতনামেও ফের রোগী শনাক্ত 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৫ জুলাই ২০২০, ২২:১১
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

করোনা নিয়ন্ত্রণে যেসব দেশের নাম সবার আগে আসছে এর মধ্যে ভিয়েতনাম অন্যতম। এর প্রধান কারণ চীনের প্রতিবেশী হওয়া সত্ত্বেও দেশটিতে এখনো করোনায় আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যায়নি। সফল সেই ভিয়েতনামেও ১০০ দিন পর স্থানীয়ভাবে করোনায় সংক্রমিত একজন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, তিন মাসের বেশি সময় একজন করোনা রোগী পাওয়ার পর দেশটির কর্তৃপক্ষ সংক্রমণের বিস্তারের শঙ্কায় উচ্চ সতর্কাবস্থায় ফিরে গেছে। গত ছয় মাস ধরে করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণ ঠেকিয়ে রেখে গোটা দুনিয়ার সামনে অনন্য এক নজির তৈরি করেছে দেশটি।

শুক্রবার ভিয়েতনামের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি দিয়ে জানায়, দেশের জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র দানাংয়ের বাসিন্দা ৫৭ বছর বয়সী এক ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। সন্দেহজনক মনে হওয়ায় তার নমুনা তিনবার পরীক্ষা কর হয়। কিন্তু প্রতিবারই তাতে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

স্থানীয়ভাবে সংক্রমণের বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার পর কর্তৃপক্ষের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দেয়। তড়িৎ ব্যবস্থা হিসেবে আক্রান্ত ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা ৫০ জনকে আইসোলেশনে রাখা হয়। এছাড়া তার সঙ্গে যোগাযোগ আছে এমন ১০৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তবে তাদের কারও দেহে ভাইরাসটির উপস্থিতি পাওয়া যায়নি।

এতদিন পর কীভাবে নতুন করে একজন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন তা নিয়ে সরকারিভাবে কিছু জানানো হয়নি। তবে তিনি গত প্রায় এক মাস যাবৎ তিনি নিজ এলাকা দানাংয়ের বাইরে কোথাও যাননি বলে জানানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তার দেহে নিউমোনিয়া সংক্রমণ ধরা পড়েছিল।

ভিয়েতনামের করোনা নিয়ন্ত্রণ সাফল্যের পেছনে কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, দেশটি সরকারিভাবে স্বাস্থ্য খাতের বিনিয়োগ ও রোগের চিকিৎসার চেয়ে রোগ প্রতিরোধ করার যে কর্মসূচি বহুদিন ধরে চর্চা করে আসছে মহামারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এমন কৌশল সেটি বড় ঢাল হিসেবে কাজ করেছে।

আর যখন করোনাভাইরাস দুনিয়াজুড়ে ছড়িয়ে পড়েনি, তার আগেই ভিয়েতনাম গোটা দেশটাই লকডাউন করে দদেয়। এতে ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হয়েছে। এছাড়া আগ্রাসী ও সুনির্দিষ্ট শনাক্তকরণ পরীক্ষা সঙ্গে কেন্দ্রীয় কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থাপনার কারণে এখনো করোনায় কোনো মানুষ মারা যায়নি সেখানে।

জনস্বাস্থ্য খাতের এমন দূরদর্শিতার কারণে দেশটিতে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত মানুষের সংখ্যা ৪১৫ জন। আক্রান্তদের ৩৬৫ জন সুস্থ হয়েছে। বাকিদের চিকিৎসা চলছে। কারো অবস্থাই গুরতর নয়। কারও প্রাণহানি ঘটেনি। করোনার প্রাদুর্ভাব হলেও মৃত্যু নেই এমন একমাত্র দেশ ভিয়েতনাম।

তবে গত তিন মাসে দেশটি প্রায় দেড়শো জনের মতো করোনাভাইরাস আক্রান্তের কথা জানিয়েছে ভিয়েতনাম। এদের সবাই বিদেশ থেকে সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন আর ওই সময়ই তাদের দেহে ভাইরাসটির উপস্থিতি শনাক্ত হয়।

ওডি/

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড