• বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্যাংগন ও দেপসাং থেকে চীনা সৈন্যদের সরার কোনো লক্ষণই নেই 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১১ জুলাই ২০২০, ১৬:২১
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষের পর ভারত-চীনের মধ্যে যুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। অবশেষে সীমান্তে শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে সম্মত হয়েছে উভয় দেশ। শুক্রবার দুদেশের কূটনৈতিক পর্যায়ের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। এরই মধ্যে পেট্রোলিং পয়েন্ট ১৪, ১৫ ও ১৭ থেকে সরে গেছে ইন্দো-চীন সেনা। কিন্তু প্যাংগন ও দেপসাং থেকে লাল ফৌজের সরার কোনো লক্ষণই নেই। ফলে ওই এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে। দুদেশের সেনা পর্যায়ের আগামী বৈঠকে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় অবস্থিত প্যাংগন ও দেপসাং থেকে চীনা সেনা প্রত্যাহার বিষয়টিকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বিশেষ আগ্রাধিকার দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আগামী তিন-চার দিনের মধ্যে দুদেশের মধ্যে সেনা পর্যায়ে আলোচনা হবে। শুক্রবারের বৈঠকে এ মর্মেই সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে হটলাইনে দুদেশের উচ্চ পর্যায় থেকে সবুজসংকেত মিললেই সেনা পর্যায়ের বৈঠক চূড়ান্ত হবে।

গত ৩০ জুন ভারত-চীন সেনা পর্যায়ে বৈঠক হয়েছিল। সেখানে নিয়ন্ত্রণরেখা নিয়ে দুদেশের বিরোধ প্রশমনে আলোচনা হয়। নিয়ন্ত্রণরেখায় এ দেশের ভূখণ্ড থেকে লাল ফৌজ সরানোর কথা বলে ভারতীয় সেনা। তবে এবার আলোচনায় বিশেষ গুরুত্ব পাবে প্যাংগং ও দেপসাং থেকে চীনা সেনা প্রত্যাহারের বিষয়টি।

গালওয়ান, হট স্প্রিং বা গোগরা থেকে অনেকটাই সরেছে দুদেশের সেনা। উভয় দেশের সহমতের ভিত্তিতেই এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। তবে ভারতীয় সেনার ক্ষেত্রে কৌশলগত দিক থেকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্যাংগং ও দেবসাং। এই এলাকা থেকে এখনো পর্যন্ত চীনা বাহিনী সরতে নারাজ। মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ইন্দো-চীন সেনাবাহিনীর জওয়ানরা। ফলে বাকি তিন জায়গার থেকে এ দুই জায়গাকে কেন্দ্র করে আলোচনা বেশ জটিল হবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

পিপি-১৪, ১৫ ও ১৭-এ থেকে আপাতত বেশ কয়েক কিলোমিটার করে পেছনে সরেছে ভারত-চীন সেনা। কিন্তু এরই মধ্যে প্যাংগং ও দেপসাংয়ের প্রায় ৮ কিমি ভেতরে এসে পড়েছে লাল ফৌজ। ফলে চীন এই দুই জায়গা থেকে সরতে রাজি হলেও একই দূরত্বে ভারতীয় সেনার পক্ষে সরে যাওয়া কার্যত অসম্ভব। যা নিয়ে দুই দেশের মতানৈক্য জিইয়ে থাকতে পারে।

ভারতীয় সেনার আরেক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘চীনা সেনা দেপসাং-প্যাংগং থেকে ৩ কিমি সরলে ভারতীয় বাহিনীর পক্ষে সেই দূরত্ব থেকে পেছনে যাওয়া অসম্ভব। তাহলে ভারতীয় সেনা মোট ১১ কিমি পেছনে সরবে। এলাকাগত ও কৌশলগত দিক থেকে এটা আমাদের ক্ষেত্রে খুবই অসুবিধাজনক। তাই এখানে সেনা সরে যাওয়ার নীতি কিছুটা হলেও আলাদা হবে। তবে যে করেই হোক, এপ্রিলে যেমন শান্তি-স্থিতাবস্থা বজায় ছিল- প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সেই অবস্থা ফিরিয়ে আনতে হবে।’

বর্তমানে ফিঙ্গার-৪ থেকে ৮ এলাকায় চীনা বাহিনী অবস্থান করছে। ফিঙ্গার-৩-এ রয়েছে ভারতীয় সেনার বেস ক্যাম্প। ভারতীয় বাহিনীর মূল ক্যাম্পটি ফিঙ্গার-২-এর পশ্চিমে অবস্থিত। শুক্রবার পর্যন্ত ফিঙ্গার-৪ থেকে ৮ পর্যন্ত পেট্রোলিং করতে পারেনি ভারতীয় সেনা। এ পরিস্থিতিতে দুই দেশের পরবর্তী সেনা বৈঠকে নজরে প্যাংগং-দেবসাং। সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

ওডি/

সংশ্লিষ্ট ঘটনা সমূহ : চীন ভারত সংঘাত

আরও
jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড