• বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

sonargao

বাংলাদেশিসহ ১৮০ অভিবাসীর জন্য দুয়ার খুলল ইতালি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৬ জুলাই ২০২০, ১২:২৩
বাংলাদেশিসহ ১৮০ অভিবাসীর জন্য দুয়ার খুলল ইতালি
ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীদের বহনকারী নৌকা। (ছবি : দ্য টাইমস)

ভূমধ্যসাগর থেকে ১৮০ জন অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধারের পর আটকে থাকা চ্যারিটি জাহাজকে অবশেষে তীরে ভেড়ার অনুমতি দিয়েছে ইতালি। লিবিয়া থেকে সাগর পথে ইতালিগামী ওই অভিবাসীদের মধ্যে বাংলাদেশি নাগরিকও রয়েছেন।

সোমবার (৬ জুলাই) তাদেরকে সিসিলিতে একটি সরকারি জাহাজে স্থানান্তর করে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে রাখার কথা রয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সম্প্রতি লিবিয়া থেকে অবৈধভাবে ইতালি প্রবেশের সময় ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধার হয় ওই ১৮০ অভিবাসন প্রত্যাশী। মানবিক সহায়তা প্রদানকারী সংগঠন এসওএস মেডিটারেনি পরিচালিত দ্য ওশেন ভাইকিং জাহাজ তাদেরকে ২৫-৩০ জুন চারটি গ্রুপে উদ্ধার করে।

যদিও জাহাজটিতে তীরে ভেড়ানোর অনুমতি দেওয়া হচ্ছিলো না। এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে ভাসমান ছিল জাহাজটি। পরে শুক্রবার (৩ জুলাই) মানবিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে ওশেন ভাইকিং। অভিবাসন প্রত্যাশী ও জাহাজের নাবিকদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করা হয়। শেষ পর্যন্ত এ অভিবাসন প্রত্যাশীদের প্রবেশের অনুমতি দিল ইতালি।

এরই মধ্যে ওই অভিবাসন প্রত্যাশীদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়েছে। সোমবার (৬ জুলাই) এর রিপোর্ট পাওয়ার কথা।

এসব অভিবাসন প্রত্যাশীদের মধ্যে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ইরিত্রিয়া ও নাইজেরিয়াসহ বিভিন্ন দেশের নাগরিক রয়েছেন। তাদের মধ্যে একজন ২৭ বছর বয়সী বাংলাদেশি রবিউল বিবিসি বাংলাকে বলেন, আমরা অনেক খুশি। দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে এসেছি আমরা। লিবিয়া ছিল জাহান্নামের মতো। এখন অন্তত শেষ দেখে নিতে পারব আমরা। পরিবারের লোকজনকে বলতে চাই, আমি এখনো বেঁচে আছি।

আরও পড়ুন : গালওয়ান নদীর তীরে নতুন রাস্তা, ১৯টি ক্যাম্প চীনের!

উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে ২৫ জন অপ্রাপ্তবয়স্কও আছে। তাদের কোনো প্রাপ্তবয়স্ক সঙ্গী ছিল না। এছাড়া জাহাজটি থেকে উদ্ধার হওয়া দুই নারীর মধ্যে একজন গর্ভবতী।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড