• মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৫ মাঘ ১৪২৭  |   ১৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

উত্তেজনা চরমে, লাদাখের আকাশে ভারতের যুদ্ধবিমান (ভিডিও) 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৫ জুলাই ২০২০, ১৭:১৮
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

দিন দিন আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠছে লাদাখের পরিস্থিতি। একদিকে সাম্প্রতিক স্যাটেলাইট চিত্রে ধরা পড়েছে গালওয়ান উপত্যকায় নিজেদের গতিবিধি বাড়াচ্ছে চীন। অন্যদিকে সেখানে যুদ্ধ প্রস্তুতি শেষ করে ফেলেছে ভারতও। লাদাখের আকাশে ভারতীয় যুদ্ধবিমানের মহড়া হয়েছে। ভারত হয়তো চীনকে এই বার্তা দিতে যাচ্ছে যে, তারা সবকিছুর জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

ভারত-চীন সীমান্ত এলাকার ফরোয়ার্ড এয়ারবেসে ভারতীয় বিমান বাহিনীর যুদ্ধবিমান নিয়মিত টহল দিচ্ছে। লাদাখের আকাশে উড়ছে রাশিয়ায় তৈরি সুখোই-৩০ এমকেআই ও মিগ-২৯ এর মতো অত্যাধুনিক সব যুদ্ধবিমান। এছাড়া মালবাহী বিমান সি-১৭ ও সি-১৩০জে এবং রাশিয়ায় তৈরি ইউশিন-৭৬ ও আন্তোনভ-৩২ প্রতিদিনই সেনাবাহিনীর বিভিন্ন সরঞ্জাম পৌঁছে দিচ্ছে প্রত্যন্ত অঞ্চলে। পূর্ব লাদাখ এলাকায় যুদ্ধবিমান অ্যাপাচি হেলিকপ্টারের মাধ্যমে সেনাদের সবরকমের উপকরণ পৌঁছে যাচ্ছে ৷ পার্বত্য এলাকায় এই বিমান খুব কার্যকরী ৷

সংবাদসংস্থা এএনআইকে এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ওই এলাকায় হামলা হলে সীমান্ত লাগোয়া ছাউনিগুলোর গুরুত্ব সবচেয়ে বেশি। তাই তাদের ওপরই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিক ধাক্কাটা তাদেরই সামলাতে হবে। এরপরেই পেছনে ছাউনি থেকে সহায়তা পাবে তারা।

এক উইং কমান্ডার জানিয়েছেন, সব ধরনের প্রতিকূল অবস্থার জন্য ভারতীয় বিমানবাহিনী তৈরি আছে। সব ধরনের প্রস্তুতি সেরে রেখেছে তারা। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে যুদ্ধ পরিস্থিতিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে বিমানবাহিনী। তাই তাদের শতভাগ তৈরি থাকতে হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ জুন রাতে গালওয়ান উপত্যকায় চীনা বাহিনীর হামলায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর ২০ সেনা সদস্য নিহত হন। এই ঘটনার পর থেকেই উত্তপ্ত সীমান্ত। দু’দেশের মধ্যে সেনাবাহিনীর উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হলেও এখনো কোনো সমাধান পাওয়া যায়নি। সূত্র- নিউজ ১৮।

ওডি/

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড