• শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভারতে পানি সরবরাহ বন্ধের খবর ভুয়া : ভুটান 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৬ জুন ২০২০, ১৯:৩৬
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

ভারতের আসাম রাজ্যের দুটি জেলার কৃষকদের পানি সরবরাহ ভুটান বন্ধ করে দিয়েছে বলে যে খবর বের হয়েছে তা ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে থিম্পু। শুক্রবার ভুটানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারতের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি তৈরি করতে ইচ্ছাকৃতভাবে এই খবর প্রচার করা হয়েছে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভারতের জি নিউজসহ বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের খবরে ওই পানি সরবরাহ বন্ধের খবর প্রকাশ হয়।
 
ভুটানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ জুন থেকে ভারতে একাধিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে অভিযোগ করা হয়েছে, আসামের বাকসা ও উদলগিরি জেলার ভারতীয় কৃষকদের পানি সরবরাহের লাইন বন্ধ করে দিয়েছে ভুটান। সীমান্তবর্তী সামদ্রুপ জংকার জেলা থেকে ভারতের ওই দুটি জেলায় পানি সরবরাহ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এই অভিযোগ পীড়াদায়ক আর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় স্পষ্ট করে বলতে চায় এসব খবর সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, কেননা এই সময়ে পানি সরবরাহ বন্ধের কোনও কারণ নেই।’ এতে বলা হয়, ভুটান ও আসামের বন্ধুত্বপূর্ণ জনগণের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি তৈরি করতে ইচ্ছাকৃতভাবে এই খবর প্রকাশ হয়েছে।

ভুটানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতির কয়েক ঘণ্টা আগেই আসামের মুখ্য সচিব কুমার সঞ্জয় কৃষ্ণা সংবাদমাধ্যমের খবরগুলোকে ভুল বলে উল্লেখ করেন। তিনি দাবি করেন প্রাকৃতিক কারণেই পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। তিনি দাবি করেন, প্রাকৃতিক বাধাগুলো অপসারণে সহায়তা করছে ভুটান।

ভুটানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি অনুযায়ী, আসামের বাকসা ও উদলগুরি জেলার কৃষকেরা গত কয়েক দশক ধরেই ভুটানের পানির উৎস থেকে সুবিধা নিচ্ছে। করোনা মহামারির কঠিন সময়েও তারা এই সুবিধা নিচ্ছে। বিবৃতিতে বলা হয়, ভুটানের জনগণ বিশেষ করে যারা ভারত সীমান্তে বসবাস করে তারা ভারতীয় জনগণের সঙ্গে গভীর বন্ধুত্ব ও সহযোগিতার ওপর শ্রদ্ধা রাখে। এই শ্রদ্ধা, বন্ধুত্ব এবং সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও জানানো হয় ওই বিবৃতিতে।

ওডি/ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড