• বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অধিকার আদায়ে যুক্তরাষ্ট্রের বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনেও বাংলাদেশিরা 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৪ জুন ২০২০, ২৩:৪৭
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রে চলমান বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে যুক্ত হয়েছেন অনেক বাংলাদেশি। বিভিন্ন স্টেটে চলা এসব আন্দোলনে কেবল সমর্থনই নয়, অনেকে এসব সমাবেশে অংশ নিয়ে রীতিমতো বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন। তাদেরই একজন ফ্লোরিডার অরল্যান্ডোর তিশিয়ান মাহমুদ। প্রিমেডিকেল বায়োলজির এই শিক্ষার্থী শান্তিপূর্ণ সমাবেশে যোগ দিয়ে সবার জন্যে সমান অধিকার প্রতিষ্ঠার জোড়ালো দাবি জানান।

তিশিয়ান মাহমুদের বাবা খ্যাতিমান লেখক ও চিকিৎসক ডা. সেজান মাহমুদ বলেন, 'আমাদের যৌবনে নেলসন ম্যান্ডেলার মুক্তির দাবি আন্দোলন করেছি। এ নিয়ে গান লিখেছি, গেয়েছি। তাই গণমানুষের আন্দোলনে যখন নিজের সন্তান যোগ দিয়েছে, বাধা দেই। কেবল বলেছি, বাবা করোনার সময়টায় একটু সাবধানে থেকো। যেন রোগের সংক্রমণ না হয়'।

তিনি আরো বলেন, 'একজন পেশাজীবী হিসেবে গত বিশ বছর ধরে বর্ণবাদ ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে এদেশেও কাজ করছি। তবে অবশ্যই বিক্ষোভের সুযোগে যারা লুটতরাজ করেছে, তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি'।

কেবল বিক্ষোভে অংশ নেয়া আহতদের চিকিৎসায় কাজ করা তিশিয়ান মাহমুদই কেবল নয়, বিভিন্ন স্টেটে এমন বিক্ষোভে অনেক বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে অংশ নিতে দেখা গেছে। আন্দোলনে সহায়তা করেছেন অনেকে। মঙ্গলবার হোয়াইট হাউজের সামনের বিক্ষোভে আরো অনেকের সঙ্গে ছিলেন ভার্জিনিয়ায় বসবাসরত বাংলাদেশি তরুণী ফামি মুমতাহিনা। দাঙ্গা পুলিশের সামনে ‘এর পরে কি আমি’ লেখা একটি প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে থেকে বর্ণবিদ্বেষমূলক আচরণে লিপ্ত পুলিশের নিন্দা করেন।

তবে এই আন্দোলন চলার সময় বিভিন্ন স্থানে লুটতরাজের শিকার হয়েছেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরাও। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ক্ষোভও রয়েছে। নিউ ইয়র্কের বাংলাদেশিরাও ন্যায়সঙ্গত দাবি ও এই আন্দোলনের প্রতি তাদের সমর্থন জানালেও, লুটতরাজের সমালোচনা করে চলেছেন।

নিউ ইয়র্কের সংস্কৃতিকর্মী গোপাল সান্যাল বলেছেন, 'অধিকার আদায়ে আন্দোলনে পূর্ণ সমর্থন থাকলেও নজীরবিহীন লুটপাটে কলুষিত আন্দোলন। লুটপাটকারীদের বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেওয়া হোক'। 

গত সপ্তাহে মিনিয়াপোলিসে পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামে এক কৃষ্ণাঙ্গ মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে হওয়া বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রে ৪০টিরও বেশি শহরে জারি করা কারফিউর মধ্যেও বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে মানুষ।

ওডি/ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড