• শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

'করোনাই শেষ নয়, আরও বড় বিপদ আসছে'

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৮ মে ২০২০, ১২:৩৩
করোনা

করোনা বা কোভিড-১৯ স্তব্ধ করে দিয়েছে পুরো বিশ্বকে। আরও বড় বিপদ আসছে। পরবর্তী সংক্রামক রোগের হাত থেকে মানবজাতিতে বাঁচাতে হলে এখন থেকে প্রস্তুত হতে হবে। এমনই হুঁশিয়ারি দিলেন চীনের ভাইরাস বিশেষজ্ঞ শি ঝেংলি। 

ঝেংলি বর্তমানে উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজির ডেপুটি ডিরেক্টর। সেই ল্যাবরেটরি, যেখান থেকে করোনার উৎপত্তি বলে অভিযোগ তুলেছে গোটা বিশ্ব। যদিও শি ঝেংলি বা ইনস্টিটিউটের ডিরেক্টর ওয়াং ইয়ানয়ি বারবার তা খারিজ করেছেন। কিন্তু এবার আরও এক ধাপ এগিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। সোমবার চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ঝেংলি বলেন, যে করোনা ভাইরাসের এখনও পর্যন্ত দেখা গিয়েছে, তা হিমশৈলের চূড়ামাত্র। পরবর্তী সংক্রামক রোগের মহামারী থেকে মানুষকে বাঁচাতে চাইলে, আমাদের অতি অবশ্যই প্রাকৃতিকভাবে বন্য প্রাণীদের শরীরে থাকা ভাইরাসগুলি সম্পর্কে জানতে হবে। বাকিদেরও আগাম সতর্ক করতে হবে। তা না হলে আরেকটা মহামারী আসবে।

এমন অসংখ্য প্রাণঘাতী সংক্রামক ভাইরাস রুখতে আন্তর্জাতিক সমন্বয় ও সহযোগিতা প্রয়োজন বলেই মনে করে গবেষক শি ঝেংলি। তার মতে, ভাইরাস নিয়ে গবেষণার ক্ষেত্রে বিজ্ঞানী এবং সরকারকে স্বচ্ছ এবং একে অপরের সহযোগী হতে হবে। বিজ্ঞান নিয়ে রাজনীতি খুবই দুঃখের বিষয়। সেক্ষেত্রে রোগ নিরাময়ের কাজ অসম্ভব হয়ে পড়ে। কাকতালীয়ভাবে যেদিন বেইজিংয়ে চিনের ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেস শুরু হল সেদিনই এই সাক্ষাৎকার দেন শি। এবারের ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসে মূল আলোচনার বিষয় হল করোনা উৎপত্তি নিয়ে চীনের উপর আমেরিকার চাপ।

উহানের ল্যাবরেটরি থেকেই ভাইরাস ছড়িয়েছে বলে দাবি করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদিও সেই অভিযোগ উড়িয়ে গত বৃহস্পতিবারই চিনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানিয়েছিলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছেও এর কোনও প্রমাণ নেই। একইভাবে শি ঝেংলিও জানিয়েছেন, তিনি যে ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করতেন তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের সঙ্গে করোনার সংক্রমণের কোনও মিল নেই। তার ল্যাবের সঙ্গে যে এই মহামারীর কোনও যোগ নেই সেকথা সোশ্যাাল মিডিয়াতেও জানিয়েছিলেন তিনি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড