• মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মৃত মাকে জাগানোর ব্যর্থ চেষ্টায় শিশুটি 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৭ মে ২০২০, ২০:৩৪
করোনা
ছবি : সংগৃহীত

দীর্ঘ পথযাত্রায় প্রচণ্ড গরম, ক্ষুধা এবং ক্লান্তির কাছে হেরে গেছেন এক মা। তার নিথর দেহ চাদরে মুড়িয়ে রাখা হয়েছে রেল স্টেশনে। এই মায়ের কোলেই ছিল ছোট্ট এক শিশু। মা মারা গেছেন; সেটি বোঝার ক্ষমতাও হয়নি তার। রেলস্টেশনে চাদরে ঢেকে রাখা মাকে ঘুমিয়েছেন মনে করে বারবার জাগানোর চেষ্টা করছে শিশুটি। কিন্তু কোনও সাড়া মিলছে না মায়ের।

বিহারের একটি রেলস্টেশনের হৃদয়বিদারক এই দৃশ্য ভারতে লকডাউনের কারণে অভিবাসী শ্রমিকদের করুণ দুর্দশার চিত্র তুলে ধরেছে; যা নাড়া দিয়েছে দেশটির কোটি কোটি মানুষকে।

বিহার রাজ্যের মুজাফফরপুর রেল স্টেশনের এই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেখা যায়, চাদরে ঢাকা মৃত মায়ের পাশে খেলছে শিশুটি। খেলার ফাঁকে বারবার মায়ের শরীর থেকে চাদর সরিয়ে তাকে জাগানোর চেষ্টা করছে। শিশুটি দেখছে, চাদর সরলেও তার মা নড়ছেন না।

মুজাফফরপুরের রেলস্টেশনে সোমবার রাতে শ্রমিকদের বিশেষ অভিবাসী ট্রেনে চেপে ফেরেন ওই মা। অতিরিক্ত গরম, ক্ষুধা এবং দীর্ঘযাত্রার ক্লান্তির কারণে স্টেশনে নামার পরই চেতনা হারিয়ে ফেলেন তিনি। একই স্টেশনে দুই বছর বয়সী এক শিশুও অনাহারে এবং অতিরিক্ত তাপমাত্রার কারণে মারা গেছে। এই শিশুটি তার পরিবারের সঙ্গে দিল্লি থেকে বিহারে ফিরে আসে রোববার।

ওই নারীর পরিবারের সদস্যরা বলেছেন, খাবার এবং পানির অভাবে তিনি মারা গেছেন। রোববার গুজরাট থেকে একটি ট্রেনে করে বিহারে আসছিলেন তিনি। সোমবার ট্রেনটি মুজাফফরপুরে পৌঁছানোর পরপরই তিনি সংজ্ঞা হারিয়ে লুটিয়ে পড়েন।

স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে মরদেহ রাখা হয়। এ সময় তার ছোট্ট শিশুটি মৃত মায়ের পাশে খেলতে থাকে। মাঝে মাঝে মৃত মাকে জাগানোর চেষ্টা করে সে। এমন হৃদয়বিদারক দৃশ্য দেখে পাশে থেকে অন্য একজন শিশুটিকে দূরে নিয়ে যায়।

গত ২৫ মার্চ ভারতে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে লকডাউন জারি করা হয়। এরপর দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়া লাখ লাখ অভিবাসী শ্রমিক যানবাহন না পেয়ে পায়ে হেঁটে গ্রামে ফিরতে শুরু করেন। চাকরি হারিয়ে অর্থ কষ্টে থাকা এই শ্রমিকরা হাজার হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে বাড়ি ফেরেন। তবে ইতোমধ্যে অনেকেই বাড়িতে পৌঁছানোর আগেই গাড়ি চাপায়, অনাহারে এবং ক্লান্তির কাছে হেরে পাড়ি দিয়েছেন না ফেরার দেশে।

তবে চলতি মাসের শুরুর দিকে দেশটির সরকার অভিবাসী শ্রমিকদের এমন দুর্দশার খবরে গণমাধ্যমে আসার পর বিশেষ ট্রেন চালু করে। কিন্তু বিভিন্ন ধরনের কাগজপত্রের বেড়াজালে অনেক শ্রমিক এসব ট্রেনে করে বাড়ি ফিরতে পারছেন না।

ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে বর্তমানে তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে। যা শ্রমিকদের বাড়ি ফেরার যাত্রায় মরার ওপর খাড়ার ঘা হিসেবে হাজির হয়েছে। 

ওডি/ 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড