• বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী : কে এই মুহিউদ্দিন

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০১ মার্চ ২০২০, ০৯:৫৯
মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী : কে এই মুহিউদ্দিন
মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন (ছবি : এমবিএস নিউজ)

মাহাথির মোহাম্মদ কিংবা আনোয়ার ইব্রাহিম নন, এমনকি অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদ ও বর্তমান অর্থমন্ত্রী আলী আজমিনও নন। সব নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে মালয়েশিয়ার পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ঘোষিত হয়েছে মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের নাম।

শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাজা আবদুল্লাহ সুলতান আহমাদ শাহ নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের নাম ঘোষণা করেন। এবার অপেক্ষা কেবল শপথগ্রহণের, রবিবার (১ মার্চ) সকালেই কার্যক্রমটি সম্পন্ন হবে।

বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ মাহাথির মোহাম্মদের সরে দাঁড়ানোর মাত্র পাঁচ দিনের মাথায় দেশের অষ্টম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করেন রাজা সুলতান আহমাদ শাহ। কিন্তু কে এই মুহিউদ্দিন ইয়াসিন?

বেইজিংভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, মালয়েশিয়ার ক্ষমতা চক্রের শীর্ষে আরোহণের পথ মুহিউদ্দিনের চেয়ে ভালো খুব কম রাজনীতিবিদই জানেন। ১৯৭৮ সালে দেশটিতে রাজনীতির সঙ্গে নিজেকে জড়িত করেন মুহিউদ্দিন। সেবারই গুরুত্বপূর্ণ পাগোহ আসন থেকে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

দীর্ঘ ৪২ বছরের রাজনৈতিক জীবনে মুহিউদ্দিন মোট ছয়টি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব সামলেছেন। পররাষ্ট্র, বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ সব মন্ত্রণালয়ের সর্বোচ্চ পদেও দীর্ঘদিন ছিলেন ৭২ বছর বয়সী এই রাজনীতিক। যদিও এসবের চেয়ে আরও বড় দায়িত্বও তাকে সামাল দিতে হয়েছে।

সদ্য পদত্যাগী প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক দল পাকাতান হারাপান ক্ষমতায় থাকাকালীন মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদে ছিলেন তিনি। দেশটির ষষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের সময়ে টানা ছয় বছর উপপ্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। তবে ২০১৫ সালে সেই পদ থেকে মুহিউদ্দিনকে সরিয়ে দেন নাজিব। মূলত সরকারের আর্থিক কেলেঙ্কারি ইস্যুতে কথা বলায় তাকে বরখাস্ত করা হয়।

রাজাকের দল থেকে বরখাস্ত হওয়ার পরপরই মাহাথির ও তার ছেলে মুখরিজের সঙ্গে হাত মেলান মুহিউদ্দিন। ২০১৬ সালে তারা একত্রে গঠন করেন পার্টি প্রিবুমি বারসাতু মালয়েশিয়া (পিপিবিএম) নামে একটি রাজনৈতিক দল। পরে ২০১৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিল নবগঠিত দলটি।

পিপিবিএম থেকে মাহাথির মোহাম্মদ সরে দাঁড়ানোর পরপরই দলের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেন মুহিউদ্দিন। যার ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবেও এখন মাহাথিরের স্থলাভিষিক্ত হতে চলেছেন তিনি। তাছাড়া পাকাতান হারাপানের উপপ্রধান হিসেবেও দায়িত্বে রয়েছেন মুহিউদ্দিন।

উল্লেখ্য, মালয়েশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য জোহরের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দীর্ঘ ৯ বছর দায়িত্ব পালন করেছিলেন মুহিউদ্দিন। তার বাবা একজন প্রভাবশালী ধর্মীয় শিক্ষক ছিলেন। ১৯৭০ সালে ইউনিভার্সিটি অব মালয় থেকে অর্থনীতি ও মালয় স্টাডিজ বিষয় নিয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেন মুহিউদ্দিন।

আরও পড়ুন : শরণার্থীদের জন্য সীমান্ত খুলে রাখার প্রতিশ্রুতি এরদোগানের

এবার মূলত প্রধানমন্ত্রীর পদ পেতে পিএসএ ও উমনো নামে দুই রাজনৈতিক দলের সমর্থন নিতে হয়েছে মুহিউদ্দিনকে। যদিও উমনোর সঙ্গে তার এই সখ্যর তীব্র সমালোচনা করেছেন সদ্য পদত্যাগী প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড