• শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ফের রকেট হামলায় বিধ্বস্ত মার্কিন দূতাবাস চত্বর

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৯:৪৩
ফের রকেট হামলায় বিধ্বস্ত মার্কিন দূতাবাস চত্বর
রকেট হামলা চালানো হচ্ছে (ছবি : প্রতীকী)

ইরাকের রাজধানী বাগদাদে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস চত্বরে কয়েক দফায় রকেট হামলা চালানো হয়েছে। এতে এখন পর্যন্ত কোনো হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

মার্কিন সামরিক সূত্রের বরাতে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, রবিবার (১৬ জানুয়ারি) ভোর রাতে বাগদাদের সুরক্ষিত গ্রিন জোনে রকেটগুলো আঘাত হানে। হামলার পরপরই এলাকাটিতে উচ্চ সতর্কতামূলক সাইরেন বাজতে শোনা যায়।

বিশ্লেষকদের মতে, গত কয়েক মাসের মধ্যে স্থানটিতে আরও কয়েক দফায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ঘটনা ঘটেছিল। যদিও হামলাগুলোর জন্য ইরান সমর্থিত দেশটির আধাসামরিক বাহিনীকেই দায়ী করছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে কোনো পক্ষই এখনো এসব আক্রমণের দায় স্বীকার করেনি।

এর আগে ৩ জানুয়ারি ভোরে ইরাকের বাগদাদ শহরের বিমানবন্দরে মার্কিন বিমান হামলায় ইরানি জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত হন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্দেশে চালানো সেই অভিযানে তেহরান সমর্থিত পপুলার মবিলাইজেশন ফোর্সেসের (পিএমএফ) উপপ্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ বাহিনীর বেশ কয়েকজন সদস্য প্রাণ হারান।

সোলাইমানিকে হত্যার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে সর্বোচ্চ উত্তেজনা বিরাজ করছে। যার প্রেক্ষিতে বেশ কিছুদিন যাবত ওয়াশিংটনকে পাল্টা হামলার হুমকি দিয়ে আসছিল তেহরান।

অবশেষে গত ৮ জানুয়ারি ভোর রাতে ২২টি ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে বাগদাদের মার্কিন বিমান ঘাঁটিতে ভয়াবহ হামলা চালায় তারা। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানায়, এবারের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৮০ জন মার্কিন সেনা নিহত ও দুই শতাধিক লোক আহত হয়েছেন।

আরও পড়ুন : সৌদি জোটের যুদ্ধবিমান ভূপাতিতের ভিডিও ছাড়ল ইয়েমেন

এরপর ধারণা করা হচ্ছিল, ইরানের বিরুদ্ধে কঠিন কোনো পদক্ষেপই হয়তো নেবেন ট্রাম্প। যদিও বাস্তবে তা ঘটেনি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইরানকে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড