• বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ওমর আবদুল্লাহ ইস্যুতে কাশ্মীর প্রশাসনকে সুপ্রিম কোর্টের নোটিশ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:২৮
ভারত
ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের (জম্মু-কাশ্মীর)  সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ, (ছবি : সংগৃহীত)

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের (জম্মু-কাশ্মীর) সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহর মুক্তির বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে নোটিশ দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। ওমরের বোনের আবেদনের প্রেক্ষিতে এই নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে এই নোটিশের জবাব দিতে হবে। একইসঙ্গে জননিরাপত্তা আইনের (পিএসএ) আওতায় ওমর আবদুল্লাহকে বন্দি রাখার বিষয়টি আদৌ বৈধ কি না তা নিয়েও তদন্ত করবে শীর্ষ আদালত।

ইরানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম পার্সটুডে জানায়, ওমর আবদুল্লাহর বোন সারা আবদুল্লাহর আইনজীবী ও সাবেক আইনমন্ত্রী কপিল সিব্বলের করা জরুরি শুনানির আবেদন শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) খারিজ করে দেয় ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। তখন জানায়, আগামী ২ মার্চ মামলাটির পরবর্তী শুনানি হবে।

শুনানির পর ওমর আবদুল্লাহর বোন সারা আবদুল্লাহ পাইলট বলেন, আশা করছি দ্রুতই (ওমরের) মুক্তি হবে। বিচার ব্যবস্থার ওপর আমাদের পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আশা করি, ভারতের বাকি অংশের মতোই কাশ্মীরের মানুষজনও সমান অধিকার পাবেন। সে দিনের অপেক্ষায় রয়েছি।

আরও পড়ুন : ইরানকে রুখতে সেনাবাহিনীর নতুন ইউনিট খুলছে ইসরায়েল

এর আগে জননিরাপত্তা আইনে ওমর আবদুল্লাহকে বন্দি করার কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন তার বোন সারা আবদুল্লাহ পাইলট। তিনি অবিলম্বে জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক এই মুখ্যমন্ত্রীকে মুক্তি দিতে শীর্ষ আদালতে আবেদন জানান।

গত বছরের ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল করে সেখানকার বিশেষ রাজ্যের সুবিধা প্রত্যাহার করে কেন্দ্রীয় সরকার। আর তখন থেকেই ওমর আবদুল্লাহ, মেহবুবা মুফতিসহ জম্মু-কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতাদের গৃহবন্দি করে রাখা হয়। সম্প্রতি তাদের ওপর জননিরাপত্তা আইনটিও চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ওডি/ডিএইচ

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড