• বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৮ আশ্বিন ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অমিত শাহ নিখোঁজ!

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:২২
অমিত শাহ নিখোঁজ!
বিজেপির সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (ছবি : ইন্ডিয়া টুডে)

সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের। শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচনের ভোট হয়েছে। বুথফেরত সমীক্ষার ফলাফল নিয়ে সে রাতেই আসন ধরে ধরে বৈঠক করেছিলেন বিজেপির শীর্ষ নেতারা।

মূলত বৈঠকটি ডেকেছিলেন খোদ অমিত শাহই। পরদিন সকালে দিল্লি বিজেপির সভাপতি মনোজ তিওয়ারি জানান, বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

মূলত সে রাত থেকেই ‘উধাও’ অমিত শাহ। সাবেক এই সভাপতিকে দূরে রাখার কৌশলও রচনা হয় তখন থেকে। এরপর সংসদেও যাননি তিনি। পার্লামেন্টে বাজেট অধিবেশনের প্রথম পর্বের শেষ দিনেও দেখা যায়নি তাকে। অথচ দিল্লিতে ভোটের সপ্তাহ খানিক আগে থেকেই পুরো প্রচারণার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন তিনি।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে ছোট-বড় পাঁচ হাজার সভার আয়োজন করেছিলেন এ নেতা। সব রাজ্য থেকে বিজেপির বিধায়ক ও নেতাদের দিল্লিতে এনে মন্ত্র শিখিয়ে পাঠিয়ে দেন অলিতে-গলিতে। যদিও এর পরও দুই অঙ্কে পৌঁছাল না তার দলের বিধায়ক সংখ্যা।

অমিত শাহের সমর্থকদের অভিযোগ, দিল্লিতে ভোটের আগেই বিজেপির সভাপতি পদে এসেছেন জগৎপ্রকাশ নড্ডা। গত সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) রাতেই বার্তা গেছে, ফল প্রতিকূল হলে নড্ডাকেই সামনে রাখবে দল। পরদিন সকাল থেকে সেটাই দেখা গেল।

ভোটের ফল স্পষ্ট হতেই সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হলেন নড্ডা। মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ৩টা নাগাদ দলের পরাজয় স্বীকার করলেন তিনি। এমনকি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালকে অভিনন্দন জানানোর টুইট করতে সন্ধ্যা গড়ালেন মোদী। অমিত শাহের তখনো কোনো উচ্চবাচ্য নেই।

কংগ্রেসের নেতারা বলছেন, অমিত শাহ শাহিন বাগে ‘কারেন্ট’ লাগাতে চেয়েছিলেন, কিন্তু ‘শর্ট সার্কিট’ হয়ে গেছে। ঝটকা খেয়ে এখন তিনি নিজেই গৃহবন্দি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় চালাবেন কি? তাদের প্রধান সেনাপতিতো নেই।

ক্ষমতাসীন বিজেপির এক নেতা বলেছেন, দিল্লিতে কংগ্রেস ও বিজেপির প্রায় একই হাল। দলের শীর্ষ নেতারা কেউ কারও মুখ দেখতে চান না। যে কারণে এবারের নির্বাচনে বিজেপির নেতারা কাজ করেননি। আজও ফল প্রকাশের পর দলের অনেক নেতাই সমর্থকদের লাড্ডু খাইয়েছেন। তবে অমিত শাহ পরিশ্রম করে কর্মীদের চাঙ্গা রাখতে চেয়েছিলেন।

তিনি আরও বলেন, আসন মেলেনি ঠিকই। তবে তিনি (অমিত শাহ) না নামলে অনেক আসনে ভোটের ব্যবধান কমত না।

আরও পড়ুন : চীনে করোনা আক্রান্ত দেহ পোড়ানোর আলামত!

বিশ্লেষকদের মতে, সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শেষে দেখা যাচ্ছে দিল্লির ৭০টি আসনের মধ্যে ৫৭টিই পেয়েছে কেজরিওয়ালের দল আম আদমি পার্টি। যেখানে ক্ষমতাসীন বিজেপির দখলে গেছে বাকি ১৩টি আসন। আর বিরোধী দল কংগ্রেসের ঝুলিতে এবার কোনো আসনই জোটেনি। আর এতেই টানা তৃতীয়বারের মতো রাজধানী নয়াদিল্লির মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

সূত্র : এনডিটিভি

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড