• বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মধ্যপ্রাচ্যের বীরদের সন্ত্রাসী বলা যাবে না, হুঁশিয়ারি জারিফের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:৩৫
মধ্যপ্রাচ্যের বীরদের সন্ত্রাসী বলা যাবে না, হুঁশিয়ারি জারিফের
ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ (ছবি : তেহরান টাইমস)

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সুর মিলিয়ে যারা মধ্যপ্রাচ্যের বীর সেনাদের সন্ত্রাসী বলছে এ অঞ্চলে তাদের কোনো ঠাই হবে না। এমনটাই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ। সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) তেহরানে নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের নিয়ে আয়োজিত সমাবেশে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

ইরানি বার্তা সংস্থা পার্সটুডে জানিয়েছে, ইসলামি বিপ্লবের ৪১তম বিজয়বার্ষিকী উপলক্ষে বিদেশি কূটনীতিকরা প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন। এ সময় তাদের উদ্দেশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফও বক্তব্য রাখেন।

হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যের বীর সেনাদের কখনোই সন্ত্রাসী বলা যাবে না। কেউ যদি এমনটা করে তাহলে তাদের এই অঞ্চলে স্থান দেওয়া হবে না।

যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, গত ৪১ বছর যাবত অনেকেই ইসলামি প্রজাতন্ত্রের পতন কামনা করেছে। যার ধারাবাহিকতায় তারা ইরানের বিরুদ্ধে নিজেদের ভুল ও অন্যায় নীতিতে এখনো অটল রয়েছে।

তেহরানের সম্পর্কে আংশিক বা পুরোপুরি ভুল ধারণার কারণে কিছু দেশ যে নীতি গ্রহণ করেছে এবার তাকে ‘ভয়ংকর’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন জারিফ। 

তিনি বলেছিলেন, মার্কিন হামলায় নিহত জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও তার সহযোদ্ধাদের জানাজায় লাখ লাখ মানুষের উপস্থিতিই প্রমাণ করে যে তারা যুক্তরাষ্ট্রকে কী পরিমাণ ঘৃণা করে। তাদের মনে এখনো মার্কিন বিরোধী ক্ষোভের আগুন দাউ দাউ করে জ্বলছে।

বিদেশি কূটনীতিকদের উদ্দেশে জারিফ আরও বলেন, পশ্চিমা রাষ্ট্রগুলোকে অবিলম্বে ইরানের বিষয়ে ভুল ধারণা থেকে সরে আসতে হবে।

এর আগে ৩ জানুয়ারি ভোরে ইরাকের বাগদাদ শহরের বিমানবন্দরে মার্কিন বিমান হামলায় ইরানি জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত হন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্দেশে চালানো সেই অভিযানে তেহরান সমর্থিত পপুলার মবিলাইজেশন ফোর্সেসের (পিএমএফ) উপপ্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ বাহিনীর বেশ কয়েকজন সদস্য প্রাণ হারান।

সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে গত ৮ জানুয়ারি ভোররাতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। হামলাটির পরপরই তেহরান দাবি করে, এবার ৮০ জন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে কোনো সেনা হতাহত হয়নি বলে তাৎক্ষণিকভাবে জানানো হয়। 

এরপর ধারণা করা হচ্ছিল, ইরানের বিরুদ্ধে কঠিন কোনো পদক্ষেপই হয়তো নেবেন ট্রাম্প। যদিও বাস্তবে তা ঘটেনি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইরানকে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন।

আরও পড়ুন : ইরানের হামলা একবার, আহতের সংখ্যা বাড়ছে বহুবার

উল্লেখ্য, আলোচনার প্রস্তাব দেওয়ার পরও যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে এখনো উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড