• রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জানুয়ারিতেই ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন : বরিস

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:৫৫
বরিস জনসন
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন (ছবি : রয়টার্স)

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হয়েছে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের নেতৃত্বাধীন ব্রিটিশ কনজারভেটিভ পার্টি। যদিও ঐতিহাসিক এই জয় পাওয়ার পরপরই আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ব্রেক্সিট সম্পন্ন করে ভোটারদের আস্থার প্রতিদান দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) জয়লাভের পর বরিস জনসন তার সমর্থকদের বলেন, ‘আপনারা যারা ব্রেক্সিটের পক্ষে ভোট দিয়েছেন, আমি কখনোই তাদের হতাশ করব না। এখন আর কোনো ‘যদি’ কিংবা ‘কিন্তু’ নয়। আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যেই ব্রেক্সিট হচ্ছে।’

ব্রিটেনের মোট ৬৫০টি আসনের আইন প্রণেতাকে নির্বাচিত করতে গত বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) ভোট দিয়েছেন ভোটাররা। যেখানে সর্বশেষ ফলাফল অনুযায়ী- বরিস জনসনের কনজারভেটিভ পার্টি ৩৬৩টি আসনে জয় পেয়েছে। আর প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টি পেয়েছে ২০৩টি আসন। তাছাড়া স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টি ৪৮, লিবারেল ডেমোক্রেটরা ১১ এবং আয়ারল্যান্ডের ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি (ডিইউপি) জয়লাভ করেছে ৮টি আসনে।

সমর্থকদের উদ্দেশে বরিস জনসন বলেন, ‘ভোটাররা আমার ওপর আস্থা রেখেছেন। তাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। আমাকে ফের যুক্তরাজ্যের উন্নয়নে কাজ করার সুযোগ দেওয়ায় ধন্যবাদ।’

তিনি আরও বলেন, ‘এটা আমাদের দেশের জন্য নতুন যুগের সূচনা। মানুষ পরিবর্তন চায়। আমরা তাদের পিছিয়ে দিতে পারি না। আর আমাদের এটা করা উচিত নয়।’

এরপর জনসন প্রতিশ্রুতি দেন, আস্থার প্রতিদান দিতে তিনি নিজের সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন। আর দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাবেন।

আরও পড়ুন :- ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতা অপব্যবহারের দাবি প্রমাণিত

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে এক গণভোটে ব্রেক্সিটের পক্ষে সমর্থন জানান যুক্তরাজ্যের ভোটাররা। সেই মোতাবেক ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে বেশ কয়েক দফায় ব্রেক্সিট চুক্তি স্বাক্ষর করে যুক্তরাজ্য। যদিও ব্রিটিশ পার্লামেন্ট থেকে কখনোই এসব চুক্তির অনুমোদন দেওয়া হয়নি। এজন্য পার্লামেন্টে দলের আসন বৃদ্ধির জন্য গত ১২ ডিসেম্বর আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড