• বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বাবরি মসজিদের রায় নিয়ে মমতার প্রতিবাদী কবিতা ‘না বলা’

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৩০
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি : জি২৪ নিউজ)

ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ শনিবার (৯ নভেম্বর) ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ মামলার রায় ঘোষণা করেছেন। যেখানে অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে মসজিদ ভেঙে রাম-মন্দির নির্মাণের পক্ষে রায় দিয়েছেন তারা। এরপর থেকেই এই রায় নিয়ে চারদিকে চলছে নানান আলোচনা-সমালোচনা।

এবার বাবরি মসজিদের রায় নিয়ে কবিতা লিখলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কবিতার নাম ‘না বলা’। খবর ‘জি২৪ নিউজের’।

মসজিদ তৈরিতে শহরের মধ্যেই পাঁচ একরের একখণ্ড জমি দিতে হবে বলে বলা হয়েছে আদালতের রায়ে। এতে কষ্ট পেয়েছেন মমতা ব্যানার্জি।

তার মতে, অনেকসময় কিছু কথা মুখে বলা যায় না। তবে চুপ থাকতে থাকতেই মনের ভেতর জমে তীব্র ক্ষোভ। কষ্ট পেলে তা গাঁথা থাকে মনের মধ্যে, যা ব্যথার উদ্রেক করে। এই যন্ত্রণা বাড়ায় মানসিক দূষণ। কথা বলতে না পারাটা খুবই যন্ত্রণার।

রবিবার (১০ নভেম্বর) প্রকাশিত ‘না বলা’ নামের এই কবিতায় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন-

অনেক সময়
কথা না বলেও
অনেক কথা বলা হয়ে য়ায়।

কিছু বলার থেকে
না বলাটা
আরও শক্তিশালী বলা।

খিদে পেলে
খাবার না পেলে
খিদের ‘ক্ষুধা’ বোঝা যায়।

তেমনি ঘুমের সময়
ঘুম না পেলে
ঘুমের মর্ম বোঝা যায়।

দাঁত থাকতে
যেমন দাঁতের মর্ম
মর্মর গাঁথায় লেখা থাকে,
তেমনি কষ্ট পেল
‘কষ্টকর্ম’ প্রতি ছত্রে
গাঁথা থাকে।

মনের কথা
প্রকাশ না পেলে
কথা ‘ব্যথার’ উদ্রেক করে,
যা মানসিক দূষণ বাড়ায়।

বলা হয়ে গেলে খুলে যায় দ্বার-
কথা-কথায় কথা বলে।
আর না বলতে পারাটা
অতীব যন্ত্রণা।

ওটা তো হৃদয়ের শক্তিশেল-
জমা থাকে।।

এর আগে কাশ্মীরে ৫ বাঙালি শ্রমিকের মৃত্যু নিয়েও কবিতায় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মমতা।

ওডি/এসসা  
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড