• বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পশ্চিমবঙ্গে ‘বুলবুল’ : স্বস্তি ফিরল কলকাতার নিশ্বাসে

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৫৪
ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস
ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস জানিয়ে মাইকিং করছেন কর্মীরা (ছবিসূত্র : দ্য হিন্দু)

বেশ কিছুদিন যাবত মারাত্মক বায়ু দূষণের কবলে পড়েছে পশ্চিমবঙ্গের শহর কলকাতাসহ পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন এলাকা। দূষণ যেন কিছুতেই কমছে না। এমনকি দেশটির আবহাওয়া দপ্তর পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে বেশ শঙ্কার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। 

মূলত প্রচণ্ড মেঘলা আকাশ ও বাতাসের গতি থমকে থাকায় এই দূষণ দিনে দিনে ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। যদিও এরই মধ্যে রাজ্যটিতে আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’। এর অগ্রভাগের প্রভাবে অঞ্চলটির সাগরদ্বীপে তীব্র ঝড়ো বাতাস বইতে শুরু হয়েছে। যে কারণে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরেছে কলকাতার নিঃশ্বাসে।

যদিও ভারতীয় আবহাওয়া অফিস বলছে, আগের চেয়ে শক্তি বৃদ্ধি করে সামনের দিকে এগুলেও স্থলভাগে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গে ঘূর্ণিঝড়টি নিজের শক্তি হারাতে শুরু করেছে। এতে কলকাতার আকাশে চলমান দূষণের মাত্রা অনেকটাই কমে এসেছে।

সম্প্রতি কলকাতার বিভিন্ন স্থানে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) প্রায় ৪০০-তে পৌঁছায়। এতে বায়ু দূষণের মাত্রা রাজধানী নয়াদিল্লিকেও ছাড়িয়ে যায়। যদিও এর মাত্র দিন কয়েকের মাথায় বুলবুলের প্রভাবে গত বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) থেকেই শক্তিশালী ঝড়ো বাতাস বইতে শুরু করে। ঝড়ের তাণ্ডবে চাপা পড়ে গেছে বাতাসে ঝুলন্ত দূষণকারী উপাদানগুলো।

ঝড়ো বাতাস শুরু হওয়ার পর কলকাতার বালিগঞ্জে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স দাঁড়ায় ২৩২-এ নেমে যায়। যা আগের অবস্থার চেয়ে বেশ ভালো।

গণমাধ্যম ‘দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার’ প্রতিবেদনে জানানো হয়, শনিবার (৯ নভেম্বর) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার ফ্রেজারগঞ্জে আছড়ে পড়েছে এই ঘূর্ণিঝড়। এ সময় ঝড়ের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় প্রায় ১২০ কিলোমিটার। বুলবুলের প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গে প্রবল ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

বুলবুলের তাণ্ডবে এখন পর্যন্ত রাজ্যটির উপকূলীয় এলাকা থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে প্রায় ১ লাখ ৬৪ হাজারেরও অধিক মানুষকে। তাছাড়া এখন পর্যন্ত দুইজনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। এমনকি রেলের কয়েকটি লাইনে গাছ উপড়ে পড়ায় আপাতত ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এ দিকে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এক টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘দয়া করে আতঙ্কিত হবেন না। শান্ত থাকুন, উদ্ধার এবং ত্রাণকার্যে প্রশাসনকে সহযোগিতা করুন। সতর্ক থাকুন, নিরাপদে থাকুন।’

অপর দিকে দেশটির আলিপুর আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, সমুদ্রে বুলবুলের গতিবেগ বেশি থাকলেও স্থলভাগে আছড়ে পড়ার সময় তার গতি কমবে। কিন্তু যেভাবে শক্তিশালী হয়ে উঠেছে বুলবুল, তাতে স্থলভাগে আছড়ে পড়লেও এর গতি ঘণ্টায় ১১০ থেকে ১২০ কিলোমিটার হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। শেষ মুহূর্তে যদি শক্তি বৃদ্ধি পায়, তাহলে ১৩৫ কিলোমিটার গতিতেও তা পৌঁছে যেতে পারে।

আরও পড়ুন :- পশ্চিমবঙ্গে ‘বুলবুল’ তাণ্ডব : উপকূল ছাড়ছেন বাসিন্দারা

উল্লেখ্য, ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় বেশ কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। ইতোমধ্যে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সচিবালয় নবান্নে খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম। আর সেই কন্ট্রোলরুমের তদারকি করছেন অঞ্চলটির মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড