• মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অযোধ্যার রায় ঘোষণার আগেই যা বললেন মোদী

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৯ নভেম্বর ২০১৯, ১১:১৮
প্রধানমন্ত্রী মোদী
ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (ছবিসূত্র : ইন্ডিয়া টুডে)

ভারতের বহু প্রতীক্ষিত অযোধ্যার বাবরি মসজিদ ও রাম মন্দির নিয়ে করা মামলার রায় আজ শনিবার (৯ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্টে ঘোষণা করা হচ্ছে। দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে ঐতিহাসিক এই রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে এরই মধ্যে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন।

যদিও বাবরি মসজিদ মামলার রায়ের আগে দেশবাসীর কাছে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেছেন, ‘এই মামলার রায় কারও জয় কিংবা পরাজয় নয়।’

শনিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় এই মামলার রায় ঘোষণা করবে সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ। যদিও এর আগে গত শুক্রবার (৮ নভেম্বর) রাতে বাবরি মসজিদ ও রাম মন্দিরের রায় নিয়ে একাধিক টুইট করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

হিন্দিতে লেখা সেই টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘আগামীকাল (শনিবার) অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করবে সুপ্রিম কোর্ট। গত কয়েক মাস যাবত মামলাটির লাগাতার শুনানি চলছিল। যে কারণে গোটা দেশের নজর ছিল এই মামলার ওপর। সমাজের সর্ব স্তরের মানুষের কাছে আহ্বান, সকলে শান্তির পরিবেশ বজায় রাখুন।’

তাছাড়া অপর এক টুইট পোস্টে মোদী বলেছিলেন, ‘অযোধ্যা মামলায় আদালত যে রায় দেবে, তাতে কারও জয় কিংবা পরাজয় হবে না। দেশবাসীর কাছে আমার আবেদন, এই মামলায় যে রায়ই আসুক না কেন, সেক্ষেত্রে দেশের ঐতিহ্য অনুযায়ী শান্তি বজায় রাখাই আমাদের মূল কর্তব্য।’

মোদীর ভাষায়, ‘দীর্ঘ সময় যাবত মামলাটির শুনানি চলাকালে ভারতীয় জনগণ যেভাবে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রেখেছেন, তা সত্যিই প্রশংসনীয়।’

এর আগে গত ১৬ অক্টোবর ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন ৫ সদস্যের একটি যৌথ বেঞ্চ অযোধ্যা জমি বিতর্কের শুনানি সম্পন্ন করেন। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে সে সময় আর রায় ঘোষণা করা হয়নি।

যদিও তখন থেকেই গুঞ্জন উঠছিল আগামী ১৭ নভেম্বর অবসরে যেতে পারেন রঞ্জন গগৈ। যে কারণে এর আগেই যে কোনো দিন ঐতিহাসিক এই মামলাটির রায় হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছিল। মূলত এসব বিষয় বিবেচনা করেই অতি স্পর্শকাতর মামলার রায় ঘোষণার প্রস্তুতি সম্পন্ন করে প্রশাসন।

এ দিকে গত শুক্রবার (৮ নভেম্বর) রাতে প্রধান বিচারপতি গগৈ রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশাসনের সর্বোচ্চ কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। এমনকি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যসচিব এবং পুলিশ প্রধানের সঙ্গেও তার বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। মূলত সেই বৈঠকেই গগৈ অন্য বিচারকদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে তিনি অযোধ্যা মামলায় রায় ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেন।

আরও পড়ুন :- ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ মামলার রায় আজ

অপর দিকে রায় ঘোষণার পর উত্তরপ্রদেশসহ গোটা ভারতে যাতে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয় সে জন্য এরই মধ্যে গোটা দেশের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এমনকি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সব রাজ্যে বিশেষ সতর্কতাও জারি করতে বলা হয়েছে।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড