• মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চিলির বিক্ষোভে নারী পুলিশদের আগুনে ঝলসানোর ভিডিও ভাইরাল

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৭ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৪৮
পুলিশের গায়ে আগুন
নারী পুলিশের গায়ে আগুন (ছবিসূত্র : এবিসি নিউজ)

লাতিন আমেরিকার দেশ চিলিতে যাত্রীবাহী বাসের ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে সৃষ্ট বিক্ষোভ-দাঙ্গা এক চরম আকার ধারণ করেছে। দাঙ্গার এক পর্যায়ে বুধবার (৬ নভেম্বর) ঘটেছে মর্মান্তিক এক ঘটনা। সড়কে উত্তেজিত বিক্ষোভকারীরা দুজন নারী পুলিশ সদস্যকে আগুনে ঝলসে দিয়েছে। চিকিৎসার জন্য তাদের ইতোমধ্যে হাসপাতালে পাঠানো হলেও বর্তমানে দুজনের অবস্থাই আশঙ্কাজনক।

এরই মধ্যে ভয়াবহ সেই হামলার একটি ভিডিও গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। যেখানে অগ্নিদগ্ধ সেই নারী পুলিশদের সহকর্মীরা অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র ও হাত দিয়ে তাদের শরীর থেকে আগুন নেভানোর চেষ্টা করছিলেন বলে দেখা যায়।

কর্তৃপক্ষের বরাতে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা ‘রয়টার্স’ জানায়, গত সোমবার (৪ নভেম্বর) তাদের এক চিত্রগ্রাহক চিলির রাজধানী সান্তিয়গোর বিভিন্ন এলাকায় সংগঠিত বিক্ষোভের ছবি তুলছিলেন। এ সময় সেখান থেকে বিক্ষোভকারীদের কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়ার মাধ্যমে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা চালায় পুলিশ। মূলত তখনই সড়কে বিক্ষোভরত লোকজন পুলিশের দিকে ককটেল নিক্ষেপ করলে বাহিনীর দুজন নারী সদস্যের গায়ে আগুন লেগে যায়। এতে মুহূর্তের মধ্যেই তারা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

বার্তা সংস্থা ‘রয়টার্সের’ সেই চিত্রগ্রাহকের নাম জোর্গে সিলভা। তিনি মূলত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের প্রধান চিত্রগ্রাহক হিসেবে রয়েছেন। যদিও এবার চিলিতে চলমান বিক্ষোভের সংবাদ সংগ্রহের জন্য তাকে সেখানে পাঠানো হয়। সোমবার সন্ধ্যার মর্মান্তিক সেই হামলার বর্ণনা ‘রয়টার্সের’ সদর দপ্তরে তিনি নিজেই লিখে পাঠিয়েছেন।

চিত্রগ্রাহক জোর্গে সিলভা তার ভাষায় লিখেছেন, ‘আমি মধ্য সান্তিয়াগোর বাকুয়েদনো মেট্রো স্টেশনের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। ব্যাপক অগ্নিসংযোগের কারণে সেটি আগে থেকেই বন্ধ ছিল। পুলিশ এলাকাটি থেকে বিক্ষোভরত লোকজনকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ও জলকামান ব্যবহার করছিল। মূলত তখনই বিক্ষোভকারীদের ছোঁড়া ককটেলের আগুনে ঝলসে যায় পুলিশের দুই নারী সদস্য।’

তিনি বলেন, ‘সে সময় আমি দেখি বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে একের পর এক মলটোভ ককটেল ছুঁড়ে মারছিল। মূলত সেই ককটেল থেকেই বাহিনীর দুই নারী সদস্যের গায়ে আগুন লেগে যায়। যদিও তাদের সহকর্মীরা অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র ও হাত দিয়ে তাৎক্ষণিক আগুন নেভানোর চেষ্টা করছিলেন। তবে ততক্ষণে তাদের শরীর মারাত্মকভাবে ঝলসে গিয়েছিল।’

আরও পড়ুন :- বুরকিনা ফাসোয় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ৩৭

জোর্গে সিলভা বলেছেন, ‘খবর নিয়ে জানা যায়, বর্তমানে তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকলেও দুজনের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক।’

 

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড