• বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

দিল্লি দূষণে পাকিস্তান-চীনের হাত রয়েছে, দাবি বিজেপির

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৬ নভেম্বর ২০১৯, ১২:১৩
দিল্লিতে বাহু দূষণ
দিল্লির স্কুলগামী শিক্ষার্থী (ছবিসূত্র : রয়টার্স)

মারাত্মক বায়ু দূষণের কবলে পড়েছে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি ও এর পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন এলাকা। দূষণ যেন কিছুতেই কমছে না। এমনকি দেশটির আবহাওয়া দপ্তর পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে বেশ শঙ্কার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। 

অঞ্চলটিতে ভয়াবহ দূষণের কারণ হিসেবে প্রতিবেশী চীন অথবা পাকিস্তানকে দোষারোপ করা উচিৎ বলে এবার দাবি করেছে দেশটির ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। খবর ‘দ্য হিন্দুস্তান টাইমসের’।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) দলটির জ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদ বিনীত আগরওয়াল শারদা অভিযোগ করে বলেছেন, ‘দিল্লির মারাত্মক বায়ু দূষণের পেছনে পাকিস্তান নয়তো চীনের হাত রয়েছে। কেননা তাদের ছাড়া অন্য কোনো দেশের এই কাজ করার সাহস নেই।’ 

বার্তা সংস্থা ‘এএনআইকে’ দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, প্রতিবেশী যে কোনো রাষ্ট্র যারা আমাদের ভয় পায়, এবার তারাই এই বিষাক্ত গ্যাস ভারতের আকাশে ছাড়ছে বলে সম্ভাবনা রয়েছে।

বিনীত আগরওয়াল শারদা আরও বলেন, ‘আমি মনে করি পাকিস্তানে অথবা চীন সব সময়ই আমাদের ভয় পায়। সেক্ষেত্রে এসব দেশ থেকে কোনো বিষাক্ত গ্যাস ছাড়া হয়েছে কিনা তা আমাদের গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করতে হবে।’

বিজেপি নেতা আরও বলেছিলেন, ‘পাকিস্তান যখনই ভারতের সঙ্গে যুদ্ধে জড়িয়েছে তখনই তারা পরাজিত হয়েছে। নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ ক্ষমতায় আসার পর থেকে তারা (পাকিস্তান) ভীষণই হতাশার মধ্যে রয়েছে। তাই তারা প্রতিনিয়ত আমাদের ক্ষতির জন্যই সকল পদক্ষেপগুলো নিয়ে থাকে।’

আরও পড়ুন :- ভারতীয়দের আয়ু কমছে ৭ বছর

বিশ্লেষকদের মতে, বর্তমানে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে বায়ুদূষণের মাত্রা এক অসহনীয় সীমায় পৌঁছেছে। গত শনিবার এবং রবিবার (২ ও ৩ নভেম্বর) দিল্লির বাতাসের গুণমান সূচক বা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) ৯৯৯ ছাড়িয়েছে বলে দাবি দেশটির আবহাওয়া দপ্তরের। যে কারণে স্থানীয় বাসিন্দারা এক রকম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়েছে।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড