• সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

কানের ইনফেকশন কেন হয়?

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি

১০ আগস্ট ২০১৯, ১১:০৯
ইয়ার ইনফেকশন
ছবি : প্রতীকী

আমাদের পঞ্চইন্দ্রিয়ের মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ইন্দ্রিয়টি হলো কান। শুধু শব্দ শোনার জন্য নয়, শারীরিকভাবে সুস্থ থাকার জন্য এবং শরীরের অন্যান্য কার্যক্রমের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য কান কাজ করে থাকে। তবে অন্যান্য ইন্দ্রিয়ের মতো এই ইন্দ্রিয়টিও সংক্রমণের শিকার হয় খুব সহজে। চলুন, আজ কানের এই ইনফেকশন বা সংক্রমণ নিয়ে জেনে নেওয়া যাক-

কানের সংক্রমণ বা ইয়ার ইনফেকশন কী?

আমাদের কানের ঠিক মধ্যবর্তী স্থানে হওয়া সংক্রমণকে ইয়ার ইনফেকশন বলা হয়। এটি মূলত শিশুদের হয়ে থাকলেও বরড়াও এর দ্বারা আক্রান্ত হন। ঠান্ডা থেকে এবং ছোটখাটো সমস্যাগুলো বড় হয়ে গিয়ে এই সংক্রমণ তৈরি হয়। কানের মধ্যবর্তী এই স্থানের সাথে আমাদের মুখমণ্ডলের অন্যান্য অংশ জড়িত থাকায় এই সংক্রমণের প্রভাব পড়ে সেগুলোর ওপরেও। কানের মাঝামাঝি স্থানটি ইউস্তাচিয়ান টিউবের সাথে জড়িত। 

তাই, সর্দি বা অন্যান্য সমস্যার কারণে যে জীবাণু আমাদের নাকে বা মুখে প্রবেশ করে, সেটি এই টিউবের মধ্য দিয়ে কানে চলে আসে ও সেখানেই বাড়তে থাকে। সংক্রমণের শুরুটা সাধারণত এভাবেই হয়। 

কানে শুনতে না পারা, মাস্টোইডিটিস (কানের হাড়ে হওয়া সংক্রমণ), মেনিঙ্গিটিস, মেনিটি ডিজিজের মতো নানারকম সমস্যা এই সংক্রমণের কারণে হয়ে থাকে। 

কানের সংক্রমণ কীভাবে হয়?

কানের মধ্যবর্তী স্থানের অবস্থান মূলত ইয়ার ড্রামের পেছনেই। নাকের ঠিক পেছনেই অবস্থিত এই স্থানটি সবসময় শুষ্ক থাকবে, এমনটাই ভাবা হয়। বিশেষ করে, একে শুষ্ক রাখার কাজটি অনেকটাই ইউস্তাচিয়ান টিউবেরই করার কথা। কিন্তু সবসময় কাজটি এতো সহজ হয় না। অনেকসময় ইউস্তাচিয়ান টিউব বদ্ধ হয়ে যায়, স্যাঁতসেঁতে এবং নোংরা হয়ে পড়ে, উষ্ণ হয়ে যায়। আর তখন কানের মধ্যবর্তী এই স্থান দিয়ে পরিষ্কার বাতাস চলাচল করে না। জীবাণুর জন্ম হয়। 

সাধারণত, শিশুদের ক্ষেত্রে ইউস্তাচিয়ান টিউব অনেক বেশি নরম হয়ে থাকে। অন্যদিকে, সাইনাস, ঠান্ডা, অ্যালার্জি বা ভাইরাস- ইত্যাদি যেকোনো কারণেই এই টিউব প্রভাবিত হয়ে সংক্রমণ তৈরি করতে পারে।

চিকিৎসক কীভাবে বুঝবেন কানের সংক্রমণ হয়েছে কিনা?

ইউস্তাচিয়ান টিউব দেখলেই খুব সহজে এ ব্যাপারে বোঝা সম্ভব। সংক্রমণ তৈরি হলে এই অংশটি লালচে হয়ে থাকে। শিশুদের ক্ষেত্রে ঠান্ডাজনিত সমস্যা থাকলেই এ ব্যাপারে আরো নিশ্চিত হওয়া সম্ভব। তবে নাক ও কানের অন্যান্য সমস্যার কারণেও একইরকম প্রভাব দেখা দিতে পারে। 

কানের সংক্রমণ কত রকমের হতে পারে?

আপনার কানে সংক্রমণ দেখা দিতেই পারে। সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চললে ও ওষুধ সেবন করলে এই সমস্যা দূর হয়ে যাবে সহজেই। অনেকসময় অবশ্য এটি খুব বাজে পর্যায় পর্যন্তও চলে যেতে পারে। যেটাকে চিকিৎসকেরা অ্যাকিউট ইয়ার ইনফেকশন বলে থাকেন। শিশু কিংবা বয়স্কদের ক্ষেত্রে এমন সমস্যা স্বাভাবিক হলেও যদি ছয়মাসের বিরতিতে তিনবার এই সমস্যা দেখা যায় তাহলে সেটাকে রিকারেন্ট ইয়ার ইনফেকশন বলা যায়। এক্ষেত্রে বারবার এই সমস্যাটি হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। 

আবার, ইউস্তাচিয়ান টিউব অনেকসময় সঠিক কাজ করতে পারে না। এতে করে কানের মধ্যবর্তী অংশে পানি জমে থাকার সমস্যা তৈরি হয়। এটি খুব দ্রুত জীবাণু হয়তো তৈরি করে না, তবে এমন আশঙ্কা থেকেই যায়। 

ইয়ার ইনফেকশন খুব বেশি কঠিন কোনো সমস্যা নয়। বিশেষ করে, আপনি যদি আপনার সমস্যাকে এড়িয়ে না গিয়ে, ছোট না ভেবে চিকিৎসকের সাথে কথা বলেন এবং গুরুত্ব দিয়ে সমাধান খোঁজার চেষ্টা করেন, সেক্ষেত্রে ইয়ার ইনফেকশন থাকা স্বত্বেও খুব সহজেই সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন। অন্যথায় অবশ্যই শুধু কান নয়, আপনার মুখমণ্ডলের বাকি অংশগুলোরও এই সমস্যাটির মাধ্যমে প্রভাবিত হওয়ার আশঙ্কা থেকে যাবে। 

তাই সময় থাকতেই সচেতন হোন। যত ছোট সমস্যাই হোক, হেলাফেলা না করে যথাযথ চিকিৎসা নিন।

সূত্র- ওয়েবএমডি।

ওডি/এনএম

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড