• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আকস্মিক হৃদরোগে মৃত্যু প্রতিরোধ করবে ‘কার্ডিও ডিফ্রিবিলেটর’

  স্বাস্থ্য ডেস্ক

১০ জুলাই ২০১৯, ১৮:৪৭
হার্ট অ্যাটাক
ছবি- প্রতীকী

সাধারণ মানুষের মধ্যে কার্ডিও ভাসকুলার রোগ সম্পর্কে জানা বোঝার ঘাটতি রয়েছে। এর ফলে তারা হার্ট অ্যাটাক এবং আকস্মিক কার্ডিও অ্যারেস্টের মধ্যে পার্থক্য করতে পারেন না। হার্ট অ্যাটাক হলো ব্লক হওয়া ধমনির কারণে রক্ত সঞ্চালনে সমস্যা হওয়া। সাধারণত এ লক্ষণ হার্ট অ্যাটাক হওয়ার কয়েক সপ্তাহ আগে থেকে দেখা যায়। 

তবে হার্ট অ্যারেস্টের ক্ষেত্রে এটি একটি ইলেক্ট্রিক্যাল সমস্যা। সমস্যাটি প্রায়শই মস্তিষ্ক ও অন্যান্য অঙ্গগুলোর রক্ত সরবরাহ বন্ধ করে দেয়। দ্রুতসময়ে এর চিকিৎসা না নিলে ফলাফল হতে পারে হঠাৎ মৃত্যু।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কার্ডিও ভাসকুলার ডিজিজের (এনআইভিসিডি) অধ্যাপক ও ইমপালস হসপিটাল, ইলেক্ট্রফিজিওলজি বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. এম আতাহার আলী এ বিষয়ে বলেন, ‘বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আকস্মিক কার্ডিয়াক মৃত্যু ঘটে অস্বাভাবিক হৃদ স্পন্দনের কারণে। যাকে আররিদমিয়াস বলা হয়। অস্বাভাবিক ও অনিশ্চিত হার্ট রিদম জীবন হুমকি স্বরুপ, যার ফলে হার্টে ব্লাড পাম্পের অক্ষমতা বাড়ে এবং মুহূর্তের মধ্যে মৃত্যুও ঘটতে পারে, যদি চিকিৎসা না থাকে।’

ডা. আতাহার আলী বলেন, হার্ট অ্যাটাক বা ব্লক আর্টারিসির শিকার হওয়া রোগীদের চেয়ে আকস্মিক কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট থেকে বেঁচে যাওয়া রোগীদের ঝুঁকি বেশি। অন্যান্য রোগীদের যেমন হাইপারটেনশন, ডায়াবেটিস, ওবিসিটি এবং সেডেনারি লাইফস্টাইল আকস্মিক কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের প্রবণতা আছে। এই সকল রোগীদের নিয়মিত হার্ট স্ক্রিনিং করা এবং বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের নিকট ক্লিনিক্যাল সেবা গ্রহণ করা উচিত। 

বিশেষজ্ঞ এ চিকিৎসক বলেন, আকস্মিক কার্ডিয়াক মৃত্যুর অধিক ঝুঁকি সম্পন্ন রোগীদের জন্য ইমপ্লান্টেবল কার্ডিও ভাসকুলার ডিফ্রিবিলেটর (আইসিডি) প্রতিরোধ ব্যবস্থা হিসাবে সন্নিবেশিত হতে পারে। আইসিডি, পেসমেকারের মতো একটি ছোট যন্ত্র বিশেষ যা আররিদমিয়াস সংশোধন করতে ডিজাইন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আইসিডি ক্রমাগত হার্ট রিদম মনিটর করে। যখন এটি খুব দ্রুত অস্বাভাবিক হার্ট রিদম সনাক্ত করে। একই সঙ্গে হার্ট মাসলে শক্তি জুগিয়ে হার্ট বিট পুনরায় স্বাভাবিক করে তোলে। আইসিডিটি প্রতিটি পর্বের তথ্যও সংরক্ষণ করে যা ডাক্তার দ্বারা হাসপাতালে রাখা তৃতীয় ব্যবস্থার মধ্যদিয়ে দেখা যায়। তবে বাড়তি জটিলতা এবং বিলম্ব সনাক্তকরণ রোগীদের সমাধান হচ্ছে পালিয়াটিভ কেয়ার। অনিয়মিত হৃদ স্পন্দনে ভুগছেন এমন রোগীদের কার্ডিয়াক রিসাইক্রোনাইজেশন থেরাপি পেসমেকার (সিআরটি-পি) বেছে নেয়ার সুপারিশ করা হয়। 

তিনি আরও বলেন, শিরা ও হার্টের মধ্যদিয়ে প্রধান তারসমূহ বুকে ত্বকের নিচে ইমপ্লান্ট করা হয়ে থাকে। এটি হার্টের রিদম মনিটরিং এ সাহায্য করে। অনিশ্চিত রিদমের ক্ষেত্রে, ডিভাইসটি স্বাভাবিক রিদমে ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করতে পারে।

ওডি/এসএ 

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড