• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

বদহজম : বড় কোনো অসুখের লক্ষণ নয় তো?

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি

১৩ জুন ২০১৯, ০৯:৪৫
বদহজম
ছবি : প্রতীকী

চিকিৎসকদের কাছে যে সমস্যাগুলো নিয়ে প্রায় প্রতিটি রোগীই যান, সেগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে হজমজনিত সমস্যা। এর পেছনে খুব সাধারণ কারণ যেমন থাকতে পারে, তেমনই খুব ভয়ঙ্কর কোন অসুখও লুকিয়ে থাকতে পারে। আপনিও যদি এমন সমস্যায় ভুগে থাকেন, তাহলে সমস্যাটি সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন এই লেখাটি থেকে- 

হজমে সমস্যা কেন হয়?

সাধারণত, হজমপ্রক্রিয়ার মাধ্যমে আমাদের গ্রহণ করা খাবারগুলো পাকস্থলীর ভেতরে গ্যাস্ট্রিক জ্যুসের সাথে মিশ্রিত হয় এবং নরম হয়ে যায়। এর পরবর্তী ধাপে এই মিশ্রণ অন্ত্রনালীতে যায়। খাবার গ্রহণের ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যেই খাবারের অর্ধেক অংশ পাকস্থলী থেকে চলে যায়। পাকস্থলী খালি হয়ে যাওয়ার এই প্রক্রিয়াতে যদি কিছুটা দেরি হয় তাহলেই খাবার ও বাতাস অনেকটা বেশি সময়ের জন্য পেটে থাকে। ফলে বদহজমের সমস্যা বোধ হয়। 

এটি মূলত দুইটি কারণে বেশি হয়ে থাকে। প্রথমত, অনেক বেশি খেয়ে ফেলার কারণে; খাবার হজম করার প্রক্রিয়াকে ধীর করে দেয় এসব খাবার, এই যেমন- তৈলাক্ত খাবার, ভাজা খাবার এবং ক্যাফেইন গ্রহণের জন্য। 

এছাড়া, কিছু শারীরিক সমস্যার কারণেও বুক জ্বালাপোড়া ও বদহজম হতে পারে। বদহজমের একটি অন্যতম বড় কারণ হলো ফাংশনাল ডিসপেপসিয়া। নানারকম ওষুধ, ডায়াবেটিস এবং উদ্বিগ্নতার মতো সমস্যার কারণে এমনটা হতে পারে। হেলিকোবেক্টার নামক একটি ভাইরাসের আক্রমণে হওয়া হাইপারএসিডিটির কারণে গ্যাস্ট্রিটিস নামক সমস্যা হতে পারে। আর সবচাইতে ভয়ঙ্কর ব্যাপার হিসেবে গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের লক্ষণ হিসেবেও বদহজম দেখা দিতে পারে। 

আমি কি চিকিৎসকের সাথে কথা বলবো?

হজমে সমস্যা হলে প্রাথমিকভাবে ঘরোয়া চিকিৎসা নেওয়ার এবং স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন। এই পুরো ব্যাপারটি আপনাকে সচেতনভাবে করতে হবে। তবে আপনার মধ্যে যদি নিচের লক্ষণগুলো দেখা যায়, এই যেমন-

● ওজন কমে যাওয়া
● পিঠে ব্যথাবোধ করা
● খাবার গ্রহণের সময় অস্বস্তিবোধ করা

যদি এই সমস্যাগুলো দুই সপ্তাহের বেশিদিন স্থায়ী হয় এবং যদি আপনার বয়স ৪০ এর বেশি হয় সেক্ষেত্রে, চিকিৎসকের সাথে দ্রুত দেখা করুন এবং নিজের সমস্যা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন। 

হজমে সমস্যা দূর করতে আপনি কী করতে পারেন?

যদি আপনার মধ্যে উপরোক্ত সমস্যাগুলো না দেখতে পান এবং হজমে সমস্যা বোধ করেন, তাহলে নিজে নিজেই কিছু কাজ করে নিতে পারেন আপনি সমস্যার সমাধান হিসেবে। প্রাথমিক সমাধান হিসেবে অ্যান্টাসিড সেবন করতে পারেন। এটি আপনার পাকস্থলীর গ্যাসের স্তরকে কমিয়ে দেবে। 

এছাড়া, স্বাস্থ্যসম্মত ও সঠিক পরিমাণে খাবার গ্রহণ করতে পারেন। চেষ্টা করুন, অ্যালকোহল, ধূমপান, তৈলাক্ত খাবার ইত্যাদি থেকে দূরে থাকতে। চা বা কফি পান করার অভ্যাস থাকলে সেটাও কমিয়ে আনুন। তবে চায়ের নেশা থাকলে পেপারমিন্ট টি পান করতে পারেন। এতে করে আপনার শরীরে অ্যাসিডের সমস্যা দেখা দিবে না। 

হজমে সমস্যা হওয়াটা খুব একটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। তবে এই সমস্যার স্থায়িত্ব এবং পরিমাণ এমন সহজ ব্যাপারটিকেও খুব জটিল করে তুলতে পারে। তাই, হজমে সমস্যা হলে সেটাকে হালকাভাবে না নিয়ে গুরুত্বের সাথে দেখুন এবং চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করুন।

মূল লেখক- ডক্টর লুই হক ফুং, গ্লেনাগ্লেস হসপিটাল।

ওডি/এনএম

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড