• সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

আপনি জিইআরডি-তে ভুগছেন না তো?

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি ২২ মে ২০১৯, ১৩:৩৪

জিইআরডি
ছবি : সম্পাদিত

খাবার আমাদের জীবনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। তবে এই খাবারই কখনো কখনো আমাদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর হয়ে পড়ে। অ্যাসিডিটি, বুক জ্বালাপোড়াসহ নানারকম সমস্যার জন্ম দেয় কিছু কিছু খাবার। এমনটা কি আপনার সাথেও হচ্ছে? তাহলে আরো অনেকের মতো আপনিও হয়তো জিইআরডি সমস্যায় ভুগছেন। জিইআরডি কী? এমন সমস্যায় ভুগলে কী ধরণের খাবার গ্রহন করবেন? চলুন, জেন নেওয়া যাক!

জিইআরডি কী?

জিইআরডি বা গ্যাস্ট্রো-ওসিওফেগাল রিফ্ল্যাক্স ডিজিজ হচ্ছে পাকস্থলীর এমন একটি সমস্যা, যেক্ষেত্রে মূলত পাকস্থলী ও খাদ্যনালীর পেশীতে সমস্যা তৈরি হয়। এতে করে হিয়াশাল হার্নিয়া নামক একটি ব্যাপার দেখা যায়। যার মাধ্যমে পাকস্থলীর কিছু অংশ খাদ্যনালীতে ভাঁজ হিসেবে প্রবেশ করে। ফলে আক্রান্ত ব্যক্তি অধিকাংশ সময়েই অ্যাসিডিটি ও বুক জ্বালাপোড়া অনুভব করেন।

জিইআরডি হলে কোন ধরণের খাবার খাওয়া উচিৎ?

জিইআরডি সমস্যায় অবশ্যই কিছু নির্ধারিত খাবার গ্রহন থেকে আপনাকে বিরত থাকতে হবে এবং কিছু খাবার গ্রহন করতে হবে। জেনে নিন, এসময় আপনি কোন খাবারগুলো খেতে পারবেন।

বেশি করে সব্জি খান

সব্জিতে ফ্যাটের পরিমাণ তুলনামূলকভাবে কম থাকে। আর তাই, জিইআরডি-তে ভুগে থাকলে খাবারে নিয়মিত সব্জি রাখুন। ফুলকপি, ব্রোকোলি, শসা, সবুজ পাতাযুক্ত সব্জি ইত্যাদি বেশি করে গ্রহন করুন।

ফ্যাটবিহীন মাংস গ্রহন করুন

গরু, ভেড়া ইত্যাদি মাংসে প্রচুর পরিমাণ ফ্যাট থাকে এবং সেটি আমাদের শরীরে অনেকটা সময় পর্যন্ত অবস্থান করে। সেজন্য এমন মাংস খান, যেটি পাতলা, কম ফ্যাটযুক্ত এবং হজম করা সহজ। এক্ষেত্রে আপনি বেছে নিতে পারেন মুরগী কিংবা টার্কির মাংস।

স্বাস্থ্যসম্মত খাবার

আপনি একটু লক্ষ্য করলেই দেখতে পারবেন যে, বেশিরভাগ স্বাস্থ্যকর এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে এমন খাবারে অ্যাসিডিটি তৈরি হয় না। তাই, যেকোনো খাবার খাওয়ার সময় তুলনামূলকভাবে স্বাস্থ্যকর খাবার বেছে নেওয়ার চেষ্টা করুন।

জিইআরডি হলে কোন খাবারগুলো খাবেন না?

কোন খাবারগুলো অ্যাসিডিটি বা বুক জ্বালাপোড়া তৈরি করবে সেটা মানুষ ও সময়ভেদে ভিন্ন ভিন্ন হয়। তবে তারপরেও, কিছু নির্দিষ্ট খাবার প্রায় সবক্ষেত্রেই জিইআরডি সমস্যার জন্ম দেয়। তাই এই সমস্যা থেকে দূরে থাকতে চেষ্টা করুন-

অতিরিক্ত ফ্যাটযুক্ত খাবার
পনির, দুধ ও অতিরিক্ত ফ্যাটযুক্ত ডেইরি খাবার
টমেটো সস
চকোলেট
রসুন ও পেঁয়াজ
মশলাদার খাবার
ক্যাফেইনযুক্ত পানীয়
অ্যালকোহল

কোমল পানীয় ইত্যাদি খাবার থেকে দূরে থাকতে। এছাড়াও রাতের খাবার তাড়াতাড়ি খেয়ে নিন। বেশি রাত করে খাবার খেলে সেটাও জিইআরডি তৈরি করে। 

যদি আপনি অনেকদিন ধরে জিইআরডি সমস্যায় ভুগে থাকেন, তাহলে দ্রুত পদক্ষেপ নিন। অন্যথায়, এটি পরবর্তীতে বড় রকমের সমস্যা তৈরি করতে পারে। পেটের পলিপ্স, ক্যান্সার ইত্যাদি নানা ধরণের সমস্যা হতে পারে এই ছোট্ট ব্যাপারটি থেকে। 

আপনি যদি এমন কোনো সমস্যায় ভুগে থাকেন, সেক্ষেত্রে চিকিৎসক আপনাকে গ্যাস্ট্রেক্টোমি করার পরামর্শ দিতে পারেন। পাকস্থলীতে খুব বড় রকমের সমস্যা দেখা দিলে পাকস্থলীর কিছুটা অংশ কেটে খাবার অন্ত্রে পৌঁছানোর জন্য আলাদা একটি রাস্তা তৈরি করাকেই গ্যাস্ট্রেক্টোমি বলে। তবে এটি জিইআরডির অনেক পরের পর্যায়।

সেই পর্যন্ত যাওয়ার আগেই চিকিৎসকের সাথে কথা বলুন, নিয়মিত ওষুধ সেবন করুন ও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহন করুন। দেখবেন, খুব অল্পতেই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে গিয়েছেন আপনি।

মূল লেখক- নাটালি গোহ, মাউন্ট এলিজাবেথ নভেনা হসপিটাল। 

ওডি/এনএম

স্বাস্থ্য-ভোগান্তি, নতুন পরিচিত অসুস্থতার কথা জানাতে অথবা চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ পেতেই-মেইলকরুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব এবং সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যার পরামর্শ দেবার প্রচেষ্টা থাকবে আমাদের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড